বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর ২০২১
বৃহঃস্পতিবার, ৬ই কার্তিক ১৪২৮
সর্বশেষ
 
 
শুভ জন্মদিন মাশরাফী
প্রকাশ: ০৫:০৮ pm ০৫-১০-২০২১ হালনাগাদ: ০৫:০৮ pm ০৫-১০-২০২১
 
এইবেলা ডেস্ক
 
 
 
 


মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা। বাংলাদেশের ক্রিকেটকে বদলে দেওয়ার জীবন্ত কিংবদন্তি। ভাগ্য বেশ কয়েকবারই তাঁকে থামিয়ে দিতে চেয়েছিল। রাতের পর রাত চোখের পানি মুছে নতুন উদ্যমে ছুটেছেন। নিয়তিকে হারানোর জন্য ‘চোট’ শব্দটির সঙ্গে লড়াই করেছেন বহুবার। লড়াইয়ের একটা সময় তো চিকিৎসক বলেই দিয়েছিলেন—হাঁটুতে অস্ত্রোপচারের আর জায়গা নেই। তবুও থেমে যাননি, নিজের সঙ্গে প্রতিনিয়ত লড়াইয়ে দেশের ক্রিকেটের সঙ্গে পার করেছেন লম্বা সময়। সেই মাশরাফী দেখতে দেখতে জীবনের ৩৭টি বসন্ত পার করে ফেলেছেন। আজ ৫ অক্টোবর তাঁর ৩৮তম জন্মদিন। শুভ জন্মদিন মাশরাফী।

১৯৮৩ সালের এই দিনে নড়াইলের নড়াইলের চিত্রা নদীর পাড়ে মহিষখোলা গ্রামে জন্ম মাশরাফীর। মজার বিষয় হলো—২০১৪ সালে ঠিক আজকের দিনেই জন্ম নেয় তাঁর একমাত্র ছেলে সাহেল মোর্ত্তজা। জুনিয়র মাশরাফীকেও জন্মদিনের শুভেচ্ছা।

কারো কারো কাছে ম্যাশ, কারো কাছে আবার তিনি মাশরাফী নামে পরিচিত হলেও নড়াইলের সেই দুরন্ত কিশোরটি ছোটবেলা থেকে কৌশিক নামেই পরিচিতসহ সবার কাছে পরিচিত ছিলেন। শৈশব থেকেই ক্রিকেটের প্রতি ভালোবাসার শুরু তার।


বয়স যখন ১৮ তখন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পদার্পন ঘটে এই তারকার। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে প্রথম টেস্ট ফরম্যাটে ২০০১ সালের ৮ নভেম্বর জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে অভিষেক ঘটে মাশরাফীর। সেই থেকে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের সঙ্গে তার পথচলা শুরু হয়। টেস্ট ক্রিকেটের ঠিক ক’দিন পরই জিম্বাবুয়ের বিপক্ষেই একদিনের ক্রিকেটেও অভিষেক ঘটে তার। এরপর তার সুদীর্ঘ ১৬ বছরের ক্যারিয়ারে রয়েছে অনেক প্রাপ্তি-অপ্রাপ্তির গল্প। রয়েছে অনেক না পাওয়ার ব্যর্থতাও। তবে কোটি কোটি মানুষের কাছে মহানায়ক একজনই, আর তিনি হলেন মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা।

সাতবার পায়ে অপারেশনের জন্য ক্রিকেট ক্যারিয়ার থেকে অনেকগুলো বছর হারিয়ে গিয়েছিল মাশরাফীর। তবুও থেমে থাকেননি ‘নড়াইল এক্সপ্রেস’। ক্যারিয়ারে এতো উত্থান-পতনের পরেও ইনজুরি যেন বোলিংয়ে কোনো প্রভাবই ফেলতে পারেনি ম্যাশকে।

বাংলাদেশ ক্রিকেট ইতিহাসের অন্যতম সেরা অধিনায়ক মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা। দীর্ঘদিন ধরে দলের বাইরে রয়েছেন তিনি। ২০১৭ সালে টি-টোয়েন্টি থেকে অবসর নিলে ২০২০ সালে জিম্বাবুয়ে সিরিজের পর থেকে ওয়ানডেতেও নেই।

মাশরাফী সবশেষ দেশীয় ক্রিকেটারদের নিয়ে আয়োজিত বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপে জেমকন খুলনার হয়ে খেলেছিলেন। এক ম্যাচে ক্যারিয়ার সেরা বোলিংয়ে ৪ ওভারে ৩৫ রানে ৫ উইকেট নেন তিনি। এরপর ঘরের মাঠে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজে খেলার প্রত্যাশা থাকলেও বয়স ও দীর্ঘ পরিকল্পনার অজুহাতে তাকে দলের বাইরে রাখা হয়।

এরপর অনেকগুলো সিরিজ খেলেছে বাংলাদেশ। সাফল্য, ব্যর্থতা সবই এসেছে কিন্তু তার আর দলে ফেরা হয়নি। আদৌ তাকে ঘিরে হয়তো আর কোনো পরিকল্পনা নেই বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের। তবে মাঠের ক্রিকেটে নিজেকে আরও কয়েকবছর ধরে রাখতে চান তিনি।

আর তাই সম্প্রতি ফিটনেস নিয়েও কাজ করছেন। আবারও ক্রিকেটে ফেরা উপলক্ষে নড়াইল-২ আসনের এই এমপি ওজন ঝরিয়েছেন ১০ কেজিরও বেশি।

নি এম/ 

 

 

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
আরও খবর

 
 
 

 

E-mail: info.eibela@gmail.com

a concern of Eibela Ltd.

Request Mobile Site

Copyright © 2021 Eibela.Com
Developed by: coder71