বৃহস্পতিবার, ০২ জুলাই ২০২০
বৃহঃস্পতিবার, ১৮ই আষাঢ় ১৪২৭
সর্বশেষ
 
 
“বন্দে ভারত মিশন” এ মোদীর জয় জয়াকার !
প্রকাশ: ১০:৫৯ pm ১৪-০৫-২০২০ হালনাগাদ: ১০:৫৯ pm ১৪-০৫-২০২০
 
এইবেলা ডেস্ক
 
 
 
 


করোনাভাইরাস সঙ্কটের কারণে বিশ্বের নানা প্রান্তে যে হাজার হাজার ভারতীয় আটকা পড়ে আছেন  তাদের বিমানে ও জাহাজে করে দেশে ফিরিয়ে আনার জন্য বৃহস্পতিবার থেকে এক বিশাল অভিযান শুরু হতে যাচ্ছে।

এই অভিযানের প্রথম ধাপেই প্রায় দু'লক্ষের কাছাকাছি ভারতীয়কে ফেরানোর পরিকল্পনা করা হয়েছে – যেটাকে বলা হচ্ছে বিশ্বের 'বৃহত্তম ইভ্যাকুয়েশন'।

১৯৯০-এ প্রথম উপসাগরীয় যুদ্ধের সময় ভারতের এয়ার ইন্ডিয়া মধ্যপ্রাচ্য থেকে প্রায় ১ লক্ষ ৭০ হাজারের মতো ভারতীয়কে ফিরিয়ে এনেছিল। বিশ্বের ইতিহাসে এতোদিন সেটাই বেসামরিক নাগরিকদের বৃহত্তম ইভ্যাকুয়েশন বলে স্বীকৃত।

চলতি করোনাভাইরাস সঙ্কটে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে আটকে পড়া অন্তত তিন লক্ষ ভারতীয় দেশে ফিরে আসার জন্য দূতাবাসগুলোয় আবেদন করেছেন। এদের একটা বড় অংশকে ফিরিয়ে আনতেই ৭ই মে থেকে শুরু হয়েছে মোদীর “বন্দে ভারত মিশন”।

উদ্ধার করা মানুষের সংখ্যা বা অভিযানের ব্যাপ্তি – দু'দিক থেকেই আগের সব রেকর্ড ভেঙে দিতে চলেছে এই অপারেশন।

তবে ভারতের বেসামরিক বিমান পরিবহনমন্ত্রী হরদীপ সিং পুরী জানিয়ে দিয়েছেন, দেশে ফিরেও চোদ্দ দিনের বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে।

ভারতীয় নৌবাহিনীর তিনটি জাহাজ – আইএনএস জলশ্ব, আইএনএস মগর ও আইএনএস শার্দূলকেও এই অভিযানে যুক্ত করা হচ্ছে।

এই রণতরীগুলো উভচর অর্থাৎ সোজা সমুদ্রতটের বালুতে গিয়েও ভিড়তে পারে আর এগুলোকে কাজে লাগানো হবে মধ্যপ্রাচ্য ও মালদ্বীপে আটকে পড়া ভারতীয়দের ফিরিয়ে আনতে।

দেড় মাসেরও ওপর ভারতের আকাশে আন্তর্জাতিক বিমান চলাচল বন্ধ – তারপর সরকারের এই সিদ্ধান্ত বিদেশে আটকে পড়া অনেক ভারতীয়র মুখেই হাসি ফোটাচ্ছে।

শুক্রবার অভিযানের প্রথম দিনেই ১০টি ফ্লাইটে ২৩০০ ভারতীয়র দেশে ফেরার কথা।
আগামী এক সপ্তাহে সংযুক্ত আরব আমিরাত, ব্রিটেন, আমেরিকা, সৌদি, সিঙ্গাপুর, কাতার, মালয়েশিয়া, ফিলিপিন্স, বাংলাদেশ, কুয়েত, ওমান ও বাহরাইনে চালানো হবে এমন অন্তত ৫০টি ফ্লাইট।

নি এম/

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
আরও খবর

 
 
 

 

E-mail: info.eibela@gmail.com

a concern of Eibela Ltd.

Request Mobile Site

Copyright © 2020 Eibela.Com
Developed by: coder71