eibela24.com
মঙ্গলবার, ২৯, সেপ্টেম্বর, ২০২০
 

 
ধূমপানের চেয়েও বেশি ক্ষতিকর ডিম!
আপডেট: ০৪:৫১ pm ১০-০৫-২০২০
 
 


একটি ডিমের মধ্যে ৭ গ্রাম উচ্চ মানের প্রোটিন থাকে যা আপনার দেহের জন্য প্রয়োজনীয় পরিমাণে অ্যামিনো অ্যাসিড সরবরাহ করতে যথেষ্ট। অনেকেই বলেন, ডিমের সাদা অংশ উপকারী, আর কুসুম খাওয়া ভালো নয়। তবে বিজ্ঞানীদের মতে ডিমের কোনো অংশই অতিরিক্ত খাওয়া উচিত নয়

ডিম নিত্যদিনের খাবারের তালিকায় একটি অপরিহার্য খাবার। ডিমে থাকা অ্যামাইনো অ্যাসিড মস্তিষ্ককে মানসিক চাপ কমাতে সাহায্য করে। ভিটামিন ডি হাড় ও দাঁত শক্ত করে। ভিটামিন ডি খাবার থেকে ক্যালসিয়াম গ্রহণ করতে সহায়তা করে এবং রক্তের ক্যালসিয়ামের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে। ফলে শরীরের হাড়ের কাঠামো মজবুত ও শক্ত হয় এবং হাড়ের ক্ষয় রোধ হয়। এছাড়া শরীরে প্রতিদিন পর্যাপ্ত পরিমাণ প্রোটিনের প্রয়োজন হয়, ডিম সেটি পূরণ করে। একটি সেদ্ধ ডিমে ৬ গ্রামের বেশি প্রোটিন পাওয়া যায়।

তবে এই স্বাস্থ্যকর ডিমেই নাকি ক্ষতি! গবেষণা করে বিজ্ঞানীরা এমন তথ্য সামনে এনেছেন। জার্নাল অব অ্যাথেরসক্লেরোসিস রিসার্চ নামের একটি গবেষণা সংস্থা এই বিষয়টি সামনে আনে।

গবেষকরা জানিয়েছেন, দীর্ঘদিন গবেষণা করে তারা এমন সিদ্ধান্তে এসেছেন। তারা বলছেন, প্রতিদিন ডিম খাওয়া সিগারেটের চেয়েও বেশি ক্ষতিকর! তাদের তথ্য অনুযায়ী, বেশি ডিম খেলে শরীরে কোলেস্টরেলের মাত্রা বেড়ে যায়। যা হৃদরোগের কারণ হতে পারে।

শুধু তাই নয়, ডিম খাওয়ার ফলে আর্থ্রাইটিসের সম্ভাবনাও দেখা যায় বেশি। তবে অনেকেই বলেন, ডিমের সাদা অংশ উপকারী, আর কুসুম খাওয়া ভালো নয়। তবে বিজ্ঞানীদের মতে ডিমের যে কোনো অংশই অতিরিক্ত খাওয়া উচিত নয়।

এছাড়া বেশ কিছু গবেষণায় দেখা গেছে কাঁচা ডিমে অনেক সময় ব্যাকটেরিয়ার আক্রমণ হতে পারে। তাই তো বেশি মাত্রায় কাঁচা ডিম খেলে সংক্রমণে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা বৃদ্ধি পায়। কাঁচা ডিমে "স্যালমোনেলা" নামে একটি ব্যাকটেরিয়ার সন্ধান পাওয়া যায়, যার প্রকোপে নানা ধরনের রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা থাকে।

নি এম/