eibela24.com
বুধবার, ০৫, আগস্ট, ২০২০
 

 
আজ দশহরা
আপডেট: ০৫:২৮ pm ০১-০৬-২০২০
 
 


গঙ্গা কলিযুগে পরম তীর্থ। বিশেষ করে সব শাস্ত্রই এই কথা বলে। মহাভারতে ঋষি পুলস্ত্য, ভীস্মের নিকট কীর্তন করেছেন-- 'যেখানে গঙ্গা আছেন সেটাই দেশ, গঙ্গা তীরের সেই দেশই তপোবন ও সিদ্ধ তীর্থ' আর্য্যদের প্রাচীন ধর্মগ্রন্থেও 'গঙ্গা' নাম উল্লেখ আছে। গঙ্গা বৈদিকী নদী।

পঞ্জিকা অনুসারে, ২০২০ সালের ১ জুন, জ্যেষ্ঠ মাসের শুক্লপক্ষের দশমী তিথিতে দশহরা পালিত হয়। এই দিনই রাজা ভগীরথের তপস্যায় সন্তুষ্ট হয়ে মা গঙ্গা পৃথিবীতে নেমে আসেন। তিথি ছিল জৈষ্ঠ্য মাসের শুক্ল দশমী। এই কারণেই এদিন গঙ্গা দশহরার পুজা হয়। 

স্কন্ধপুরাণ অনুযায়ী, এই দিনে গঙ্গায় স্নান করে গঙ্গাকে দশটি ফুল, দশটি ফল ও দশটি প্রদীপ দিয়ে পুজো করার কথা বলা হয়েছে। আবার সনাতন ধর্মশাস্ত্র অনুসারে-যোগ, যাগযজ্ঞ, পুজো, অর্চনা, ব্রত, নিয়ম সবই পাপ বিনাশ করে। দশ পাপ হরা দশহরা এমনই পুণ্য তিথি।

দশহরার গঙ্গা স্তোত্র পাওয়া যায়। বলা হয়, এই দিন গঙ্গা স্নানে নাকি অনেক যজ্ঞ করার পুণ্য মেলে। এই দিন দান করলেও পুণ্যলাভ হয়। 

ধর্মীয় বিশ্বাস অনুসারে, গঙ্গার পূজা করলে মানুষ দশ প্রকার পাপ থেকে মুক্তি পায়। গঙ্গা দশহরার দিন ধ্যান ও স্নানের দ্বারা কোনও ব্যক্তি কাম, ক্রোধ, লোভ, মোহ, ঈর্ষা, হিংসা, হত্যা, ছলনা, জালিয়াতি, পরনিন্দার মতো পাপ থেকে মুক্তি পায়। তবে, এই বছর গঙ্গায় গিয়ে স্নান করা সম্ভব নয়। এমন পরিস্থিতিতে বাড়িতেই স্নানের জলে কয়েক ফোঁটা গঙ্গার জল মিশিয়ে স্নান করতে পারেন। 

নি এম/