eibela24.com
মঙ্গলবার, ২০, অক্টোবর, ২০২০
 

 
৫০ বছর তাগি বেঁচে সংসার চালায় সুপ্তন কাজী
আপডেট: ০৬:৫৭ pm ০৬-০৮-২০২০
 
 


"মনয়া তাগি ভালো তাগি, আহা রে কি সুন্দর তাগি, তাগি নেও ভাই তাড়াতাড়ি, মাজায় দিলে শান্তি পাবে মাত্র পাঁচ টাকায়! এভাবে নেচে নেচে গান গেয়ে হাট ঘুরে তাগি বিক্রি করে সংসার চালায় বাগেরহাটের চিতলমারী উপজেলার সুপ্তন কাজী। গত ৫০ বছর ধরে এভাবে তাগি বিক্রি করে সংসার চালাচ্ছে সে। পিতার মৃত্যুর পর অভাবী সংসারের দ্বায়িত্ব আসে তার কাঁধে। মাঠে চাষের জমি না থাকায় ছোটবেলা থেকে অল্প পুঁজির এ ব্যবসা শুরু করে সে। এর পর থেকে শুরু হয় তার জীবন-জীবিকার কঠিন পথচলা। 

সুপ্তন কাজী উপজেলার বেতিবুনিয়া গ্রামের মৃত সুন্দর কাজীর ছেলে। এখন আধুনিক যুগে মানুষের মধ্যে তাগির ব্যবহার কমে যাওয়ায় সংসার চালাতে হিমশিম খাচ্ছেন সুপ্তন কাজী।

চিতলমারী সদর বাজারে সুভাষ মজুমদার, ফারুক শেখ, লিটন বড়ালসহ কয়েকজন ব্যবসায়ী জানায়, ছোটবেলা থেকে দেখছি হাটের দিন সুপ্তন মিয়া নেচে-গেয়ে দরুন ভঙ্গিমায় তাগি বিক্রি করে আসছে। জানিনা কিভাবে এই ছোট ব্যবসা দিয়ে তার সংসার চলে। সরকারি ভাবে তাকে একটা অনুদান দেয়া উচিত। 

সুপ্তন কাজী বলেন, অভাবি পরিবার হওয়ায় খুব ছোটবেলা থেকে আমি এ ব্যবসা শুরু করি। এখন আধুনিক যুগের মানুষ আগের মতো তাগি ব্যবহার করে না। প্রথমে একটা তাগি দুই পয়সা থেকে চার পয়সায় বিক্রি করি এখন বিক্রি করি পাঁচ টাকায়। সারা দিন সাত-আটশ টাকার মাল বিক্রি হয়। বর্তমান সময়ে এই অল্প আয়ে সংসার চালানো বড়ই কষ্টকর। 

নি এম/বিভাষ