রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮
রবিবার, ৮ই আশ্বিন ১৪২৫
 
 
`নারী নিপীড়ন ঠেকাতে গণমাধ্যম`
প্রকাশ: ১১:১৬ am ০২-০৬-২০১৭ হালনাগাদ: ১১:১৬ am ০২-০৬-২০১৭
 
 
 


ঢাকা : নারী! প্রতিনিয়ত হচ্ছে অপমানিত, নির্যাতিত, লাঞ্ছিত। মনে পড়ে বনানীর নারী নিপীড়নের ঘটনাটি? সম্প্রতি বনানীতে ঘটে যাওয়া এই ঘটনার নির্যাতিতা নারীদের ফরেনসিক টেস্টের রিপোর্ট প্রকাশ করেছে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগ। 

কিন্তু এক মাসের বেশি সময় অতিবাহিত হওয়ায় কোনো আলামত মেলেনি শারীরিক নির্যাতনের। গতকাল বৃহস্পতিবার এ তথ্য দিয়েছে ফরেনসিক বিভাগ। 

তাহলে কি এই মামলা এখানেই থেমে যাবে? ছাত্রী দুজন পাবেন না তাদের ন্যায় বিচার? না কি অন্যান্য নিপীড়নের ঘটনার মতো এটাও ধামাচাপা পরে যাবে?

এ বিষয়ে বাংলা ইনসাইডারের সঙ্গে কথা বলে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। তিনি বলেন, ‘বিষয়টি ধামাচাপা হওয়ার কিছুই নেই। তবে এক্ষেত্রে গণমাধ্যম একটি মুখ্য ভূমিকা রাখতে পারে। ‘ 

বনানীর ছাত্রী নিপীড়ন নিয়ে জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের সাবেক চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বাংলা ইনসাইডারকে বলেন, ‘এক মাস পার হয়ে গেলে কখনোই শারীরিক নির্যাতনের আলামত মিলবে না এটা স্বাভাবিক।

এজন্য স্বীকারক্তিমূলক জবানবন্দিই বেশি কার্যকর ভূমিকা রাখবে। এ ক্ষেত্রে আইন বিভাগের দায়িত্বশীলতা মুখ্য ভূমিকা রাখবে। প্রত্যক্ষদর্শী ও আসামিদের জবানবন্দির ভিত্তিতে মামলা এগিয়ে যেতে পারে।

আর এর মাধ্যমেই মামলার গতি ত্বরান্বিত করা সম্ভব। তবে বিষয়টি ভিন্ন খাতে দেওয়ার চেষ্টা করছে কিছু ক্ষমতাশীন মানুষ। এক্ষেত্রে অবশ্যই গণমাধ্যম, এনজিও, সিভিল সোসাইটিকে তৎপর থাকতে হবে। তবেই এই বিষয়টি লোকচক্ষুর অন্তরালে না গিয়ে ছাত্রী দুটিতে ন্যায় বিচার দেওয়া সম্ভব। ’

বিগত কয়েকটি ঘটনা বিভিন্ন ইস্যুতে ধামাচাপা পরে মৃত প্রায় অবস্থা। যদি একজন নির্যাতিতা নারীর ন্যায় বিচারে গণমাধ্যম আর সিভিল সোসাইটির ভুমিকাই মুখ্য হয়ে থাকে তাহলে কেন তনু হত্যাসহ অন্যান্য বিষয়গুলো আজ আর লোকমুখে নেই? আর বার বার কেন ন্যায় বিচারের প্রশ্নে পিছিয়ে পরছে গণমাধ্যমগুলো?

এইবেলাডটকম/এএস
 

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71