শনিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯
শনিবার, ১১ই ফাল্গুন ১৪২৫
 
 
 মঞ্জু রানিকে নিখোঁজ দেখিয়ে বয়স্ক ভাতা জরিনা বেগমের নামে
প্রকাশ: ১১:৪৫ am ২৯-১০-২০১৭ হালনাগাদ: ১১:৪৫ am ২৯-১০-২০১৭
 
মোরেলগঞ্জ প্রতিনিধি
 
 
 
 


মোরেলগঞ্জ উপজেলার নিশানবাড়িয়া ইউনিয়নের বয়স্ক ভাতাভোগী মঞ্জু রানিকে (৭৮) নিখোঁজ দেখিয়ে অন্যের নামে ভাতার কার্ড প্রদান করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। মঞ্জু রানি মণ্ডল তার ভাতার কার্ড ফিরে পেতে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। জানা গেছে, ইউনিয়নের হোগলপাতি গ্রামের মৃত গৌরঙ্গ চন্দ্র মণ্ডলের স্ত্রী মঞ্জু রানি মণ্ডল ২০০৯ সালের ১ ফেব্রুয়ারি থেকে তালিকাভুক্ত হয়ে বয়স্ক ভাতার টাকা উত্তোলন করে আসছিলেন। গত ৩০ জুন তিনি ভাতার টাকা উত্তোলন করতে ব্যাংকে গিয়ে জানতে পারেন বয়স্ক ভাতার তালিকায় তার নাম নেই। তার স্থলে একই ইউনিয়নের উমাজুরি গ্রামের মৃত নাজেম আলীর স্ত্রী জরিনা বেগমের নাম রয়েছে। জরিনা বেগম সে নামে তিন হাজার টাকাও উত্তোলন করেছে। দীর্ঘদিন নিখোঁজ থাকায় তার বইটি বাতিল হয়ে  গেছে বলে তিনি জানতে পারেন। অথচ মঞ্জু রানি নিখোঁজ হননি এবং তিনি বাড়িতেই ছিলেন।

মঞ্জু রানি জানান, তিনি তার নিজের বাড়িতে থাকলেও একই ইউনিয়নের দুই নম্বর ইউপি সদস্য আলম মৃধা অসত্ উদ্দেশ্যে তাকে নিখোঁজ দেখিয়ে মোরেলগঞ্জ থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন এবং তার স্থলে নিজ ওয়ার্ডের জরিনা বেগমের নাম অন্তর্ভুক্ত করেন। এ বিষয়ে ইউপি সদস্য আলম মৃধা বলেন, ইউনিয়ন পরিষদের দেওয়া প্রত্যয়নপত্রের ওপর ভিত্তি করেই তিনি নিখোঁজের ডায়েরি করেন। ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রহিম বাচ্চু জানান, ভুলবশত এমনটি হয়েছে। তবে প্রকৃত ভাতাভোগী মঞ্জু রানির অভিযোগ আমরা গুরুত্বের সাথে বিবেচনা করছি। দ্রুত সময়ের মধ্যে  রেজ্যুলেশন করে তার নাম বহাল রাখা হবে। উপজেলা সমাজকল্যাণ কর্মকর্তা মঞ্জুরুল হাসান বলেন, মঞ্জু রানিকে তার বইটি ফিরিয়ে দেওয়ার প্রক্রিয়া চলছে।

প্রচ

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

সম্পাদক : সুকৃতি কুমার মন্ডল 

 খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

+8801711-98 15 52

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2019 Eibela.Com
Developed by: coder71