শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮
শনিবার, ৭ই আশ্বিন ১৪২৫
 
 
অবশেষে মারা গেলেন দীপ্ত সরকার
প্রকাশ: ০৩:২৯ pm ৩০-০৩-২০১৮ হালনাগাদ: ০৩:২৯ pm ৩০-০৩-২০১৮
 
এইবেলা ডেস্ক
 
 
 
 


ময়মনসিংহের ভালুকায় বিস্ফোরণে গুরুতর দগ্ধ দীপ্ত সরকারও (২৩) না ফেরার দেশে চলে গেলেন। শুক্রবার সকাল নয়টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাঁর মৃত্যু হয়। ওই বিস্ফোরণের ঘটনায় হাফিজুরের পর দীপ্তকে নিয়ে দগ্ধ চার বন্ধুই মারা গেলেন।

বার্ন ইউনিটের কর্তব্যরত চিকিৎসকের বরাত দিয়ে ঢাকা মেডিকেলের পুলিশ ফাঁড়ির উপপরিদর্শক (এসআই) বাচ্চু মিয়া দীপ্তর মৃত্যুর তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত দেড়টার দিকে হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দগ্ধ হাফিজুর রহমানের (২৪) মৃত্যু হয়। এসআই বাচ্চু মিয়া ও হাফিজের সহপাঠী তুষার মাহমুদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। বুধবার রাত পৌনে ১২টার দিকে ঢাকা মেডিকেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান শাহীন মিয়া।

শনিবার রাতে ভালুকার মাস্টারবাড়ি এলাকায় একটি ছয়তলা ভবনের তৃতীয় তলার ফ্ল্যাটে প্রচণ্ড বিস্ফোরণ ঘটে। এতে ঘটনাস্থলে তৌহিদুল ইসলাম নামের একজন মারা যান। গুরুতর দগ্ধ হন দীপ্ত সরকার, শাহীন মিয়া ও হাফিজুর রহমান। তাঁরা সবাই খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুয়েট) বস্ত্র প্রকৌশল বিভাগের শিক্ষার্থী। শিক্ষাজীবন শেষে কর্মজীবনে ঢোকার আগে হাতে-কলমে শিক্ষা নিতে এই চার শিক্ষার্থী ভালুকার স্কয়ার ফ্যাশন লিমিটেড নামের কারখানায় শিক্ষানবিশ (ইন্টার্ন) প্রকৌশলী হিসেবে যোগ দিয়েছিলেন। কারখানার পাশে মাস্টারবাড়ি এলাকায় তাঁরা ফ্ল্যাট ভাড়া নেন।

হতাহত এই চার শিক্ষার্থীর সবাই বিভাগে মেধাতালিকায় প্রথম দিকে ছিলেন। তাঁদের সহপাঠী তুষার মাহমুদ জানান, সম্মিলিত ফলাফলে দীপ্ত দ্বিতীয়, তৌহিদ তৃতীয় ও শাহীনের অবস্থান ছিল চতুর্থ।

আরপি

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71