বুধবার, ১৭ জুলাই ২০১৯
বুধবার, ২রা শ্রাবণ ১৪২৬
 
 
অবশেষে মিমের দায়িত্ব নিয়েছেন  ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসক
প্রকাশ: ০৩:০০ pm ০১-১১-২০১৭ হালনাগাদ: ০৩:০০ pm ০১-১১-২০১৭
 
ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি
 
 
 
 


‘বিএসএফের গুলিতে বাবা নিহত, মা অন্যের সংসারে’ শিরোনামে বিভিন্ন গনমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশের পর আট বছরের শিশু মিমের দায়িত্ব নিয়েছেন  ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসক আবদুল আওয়াল।

এখন থেকে ঠাকুরগাঁও সরকারি শিশুসদনে থাকবে আট বছরের এতিম শিশু মীম। সেখানে তার লেখাপড়ারও ব্যবস্থা হবে।

বুধবার বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবদুল মান্নান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, শিশু মীমের লেখাপড়া ও আশ্রয়ের জন্য ঠাকুরগাঁও সরকারি শিশু সদনে ব্যবস্থা করা হয়েছে।

মীমের বাড়ি জেলার বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার আমজানখোর ইউনিয়নের বারোসা গ্রামে।

তার বাবা মজিবর রহমান সীমান্ত এলাকায় গরু চরানোর সময় ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফের গুলিতে নিহত হন। ওই সময় মীমের বয়স ছিল মাত্র পাঁচ মাস। এদিকে চার বছর আগে মা রুমী বেগম এই এতিম শিশুকে ছেড়ে বিয়ে করে অন্যের সংসারে চলে যান।
এরপর থেকে দাদি মর্জিনার সঙ্গে অন্যের বাড়িতে আশ্রিত থাকে মীম। দুঃখ-দুর্দশার জীবন তাদের। এবাড়ি ওবাড়িতে চেয়ে খাবার জোটে। এর মধ্যে বয়স হয়ে যাওয়ায় বৃদ্ধা দাদির দুশ্চিন্তার শেষ নেই। ভেবে কূলকিনারা পান না তিনি। মৃত্যুর আগে কার কাছে রেখে যাবেন এতিম নাতনিকে?

বিভিন্ন গনমাধ্যমের প্রতিবেদনে মীমকে নিয়ে তার দাদির দুশ্চিন্তার খবর প্রকাশিত হয়। এর পর শিশুটির পাশে দাঁড়ালেন জেলা প্রশাসক আবদুল আওয়াল।

প্রসঙ্গত, গত ৯ বছরে বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় বিএসএফের গুলিতে অন্তত ১৮০ বাংলাদেশি নাগরিক নিহত হয়েছেন। এমকেপি নামে স্থানীয় একটি বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থার জরিপে এ তথ্য উঠে এসেছে।

নি এম/

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

সম্পাদক : সুকৃতি কুমার মন্ডল 

 খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

+8801711-98 15 52

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2019 Eibela.Com
Developed by: coder71