শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮
শনিবার, ৭ই আশ্বিন ১৪২৫
 
 
অর্থের অভাবে মামলা চালাতে পারছেন না বিউটি বেগম
প্রকাশ: ০৪:১৩ pm ১২-০৮-২০১৭ হালনাগাদ: ০৪:১৩ pm ১২-০৮-২০১৭
 
গলাচিপা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি :
 
 
 
 


দীর্ঘ দুই বছরেও শেষ হয়নি পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলার স্বর্ণালী আত্মহত্যার মামলা। স্বর্ণালী গলাচিপা পৌর সভার ২ নম্বর ওয়ার্ডের শ্যামলীবাগের কুটিয়াল পাড়ার আব্দুল হক মৃধার মেয়ে।

অর্থের অভাবে স্বর্ণালীর পরিবার মামলাটি চালাতে অক্ষম হয়ে পড়ছেন বলে প্রতিবেদকে জানান স্বর্ণালীর আত্মহত্যা মামলার বাদি স্বর্ণালীর মা বিউটি বেগম।  তিনি বলেন, উকিল সাহেবের টাকা, মুহরীর টাকা, স্বাক্ষীগণের হাজিরা ও আমাদের আদালতে আসা যাওয়ার যাবতীয় সব খরচ মিলিয়ে আর বহন করতে পারছিনা। আমরা এখন যে কী করবো ভেবে পাই না। মনে একটা  দুঃখ রয়ে গেল যে, আমার মেয়ের আত্মহত্যার মামলার বিচার কবে পাব জানিনা।

তিনি কান্না জড়িত কন্ঠে আরও বলেন, আমার স্বামীর অনেক  বয়স হয়েছে, তিনি যে কোন সময় মারা যেতে পারেন। জানা গেছে, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনাল স্বর্ণালীর আত্মহত্যা মামলা নং ৮০/১৫ইং। 

ঘটনা ও মামলা সূত্রে জানা যায়, একই এলাকার মনির মুন্সির ছেলে বাচ্চু মুন্সি বিভিন্ন সময়ে নিজের অসৎ উদ্দেশ্যে ফেরদৌসী  আক্তার স্বর্ণালীকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে বিয়ের  প্রলোভনে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করলে এক সময় স্বর্ণালী অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে। বিষয়টি বাচ্চু মুন্সী ও তার পরিবার অস্বীকার  করে। দুই পরিবারের অমিমাংশিত ঘটনায় রাগে, ঘৃনায় বাচ্চু মুন্সীকে দায়ী করে নিজ হাতে লেখা একটি চিঠি লিখে আত্মহত্যার পথ বেছে নেয় স্বর্ণালী। 

স্বর্ণালীর আত্মহত্যার চিঠি ও ঘটনা অনুযায়ী মনির মুন্সী ও তার ছেলে বাচ্চু মুন্সী সহ ৩ জনকে আসামী করা হয় ওই মামলায়। ফেরদৌসি আক্তার স্বর্ণালীকে বিয়ের প্রলোভন, প্রতারনা ও ধর্ষনের পর গর্ভ সঞ্চার এর অপরাধে স্বর্ণালীর মা বিউটি বেগম বাদি হয়ে বিজ্ঞ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুণাল পিটিশন মামলা দায়ের করেন বলে ভিকটিমের মা বিউটি বেগম জানান।

তিনি জানান, মামলার চার্জসিট গলাচিপা  থানায় আসলেও তদন্ত পুলিশ আসামীদের পক্ষে চার্জশিট জমা দেন। আমি নারাজি দিলে মহামান্য আদালত পূনরায় তদন্ত দিলে সেখানেও পুলিশ আসামীদের পক্ষে চার্জশিট জমা দেন। যার কারনে ন্যায় বিচার পাওয়ার আশায় বাংলাদেশ পুলিশ হেড কোয়ার্টার এর স্মরনাপন্ন হয়ে স্মারক লিপি জমা দেই। যার ডায়েরী নং ৯২/২০১৭ইং।

এস/এসএম

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71