শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮
শনিবার, ৭ই আশ্বিন ১৪২৫
 
 
অর্ধ শতাধিক বাণিজ্যিক পয়েন্টে জমজমাট এল.পি গ্যাস সিলিন্ডার ব্যবসা
প্রকাশ: ০২:২০ pm ০৪-০৮-২০১৮ হালনাগাদ: ০২:২০ pm ০৪-০৮-২০১৮
 
এইবেলা ডেস্ক
 
 
 
 


লোহাগড়া পৌরসভাসহ উপজেলার ১২টি ইউনিয়নের অর্ধ শতাধিক ব্যবসা কেন্দ্রে এল.পি গ্যাস সিলিন্ডার ব্যবসা এখন জমজমাট। যত্রতত্র বিক্রি হচ্ছে এল.পি গ্যাস সিলিন্ডার। ছোট-বড় মুদি দোকান, মুরগীর দোকান, চায়ের দোকান, ঔষুধের দোকান ও পেট্রোল পাম্পে বিক্রি হচ্ছে এল. পি সিলিন্ডার।

খোঁজ-খবর নিয়ে জানা গেছে, বর্তমানে লোহাগড়া পৌরসভা সহ উপজেলার ১২ টি ইউনিয়নের অধিকাংশ বাড়ি, বাসাবাড়ি, মেস, খাবারের হোটেল-রেস্তোরায় বেড়েছে এল.পি গ্যাস সিলিন্ডারের ব্যবহার। কিন্তু এল.পি গ্যাস সিলিন্ডার যারা ব্যবহার করছেন, তাঁরা সচেতন নন। ফলে, দূর্ঘটনার ঝুঁকি বাড়ছে। সিলিন্ডার ছিদ্র হয়ে যাওয়া, নিম্ম মানের সিলিন্ডার, ওজনে কম কিংবা মেয়াদ উত্তীর্ণ সিলিন্ডারের ব্যবহার সহ নানা সমস্যা নিয়ে দিনের পর দিন বাজারে দেদারসে বিক্রি হচ্ছে বিভিন্ন কোম্পানীর গ্যাস সিলিন্ডার।

অভিযোগ রয়েছে, বিস্ফোরক অধিদপ্তরের অনুমোদন ছাড়াই বেআইনি ভাবে স্থানীয় বিক্রেতারা যত্রতত্র এল.পি গ্যাস সিলিন্ডার বিক্রি করছে। যে সব দোকানে গ্যাস সিলিন্ডার বিক্রি হচ্ছে, সে সব দোকানে অগ্নি নির্বাপক যন্ত্র নেই। অজানা ভয় ও আতঙ্ক নিয়েই বিক্রেতারা হরদম বিক্রি করছে এল.পি গ্যাস সিলিন্ডার।

সরেজমিনে শনিবার লক্ষ্মীপাশা চৌরাস্তা, লোহাগড়া বাজার, মানিকগঞ্জ বাজার, নলদী বাজার, দিঘলিয়া বাজার সহ অধিকাংশ ব্যবসা কেন্দ্র গুলোতে ঝুঁকিপূর্ণ ভাবে বিক্রি হচ্ছে গ্যাস সিলিন্ডার। জন গুরুত্বপূর্ণ ও জনবহুল এলাকা, সড়কের পাশে, পেট্টোল পাম্পে বিক্রি হচ্ছে এল.পি গ্যাস সিলিন্ডার। এতে করে, যে কোন মূহুর্তে বড় ধরনের দূর্ঘটনা ঘটতে পারে।

লোহাগড়ায় যত্রতত্র এল.পি গ্যাস সিলিন্ডার বিক্রি হলেও এ জন্য কোন বিক্রেতার শাস্তি, সাজা কিংবা জরিমানা করা হয়েছে, সে তথ্যও খোঁজ-খবর করেও পাওয়া যায়নি।

নি এম/রূপক

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71