মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮
মঙ্গলবার, ১০ই আশ্বিন ১৪২৫
 
 
অাজ কৌশিকী অমাবস্যা : তারাপীঠে মহোৎসব
প্রকাশ: ১১:৫৭ am ২১-০৮-২০১৭ হালনাগাদ: ১১:৫৭ am ২১-০৮-২০১৭
 
এইবেলা ডেস্ক
 
 
 
 


কৌশিকী অমাবস্যার মহোৎসব ঘিরে তারাপীঠে এখন সাজো সাজো রব। রবিবার গভীর রাতে থেকে কৌশিকী অমাবস্যার পুণ্যতিথি শুরু হয় এবং থাকবে আজ সোমবার মাঝরাত পর্যন্ত। তারাপীঠে বছরের সবথেকে বেশি পুণ্যার্থী–সমাগম হয় ভাদ্র মাসের এই কৌশিকী অমাবস্যায়।

জেলা পুলিসের কর্তারা নিরাপত্তা ব্যবস্থা ও ভিড় সামলানোর আয়োজনের প্রস্তুতির জন্য গত কয়েক দিনে দফায় দফায় বৈঠক করেন। তাঁরা জানিয়েছেন, কৌশিকী অমাবস্যা উপলক্ষে তারাপীঠে রাজ্য তথা দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে কয়েক লক্ষ পুণ্যার্থী আসেন। তাই নিরাপত্তা আঁটোসাঁটো করতে সবরকম ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। এবারই প্রথম মন্দির ও শ্মশান চত্বরে ড্রোন উড়িয়ে নজরদারি চালাবে পুলিশ। গত শুক্রবার এই নতুন ব্যবস্থার মহড়া হয়। এ ছাড়া মন্দির ও শ্মশান এলাকা–সহ তারাপীঠের বিভিন্ন রাস্তার মোড়, বাস স্ট্যান্ড, অটো স্ট্যান্ড প্রভৃতি জায়গায় লাগানো হয়েছে সিসিটিভি ক্যামেরা। প্রায় ৫০০ পুলিশ কর্মী মোতায়েন করা হয়েছে তারাপীঠ জুড়ে।


বছর তিনেক আগে কৌশিকী অমাবস্যার রাতে লাখ লাখ পুণ্যার্থী–সমাগমের সময়েই বিদ্যুৎ বিপর্যয়ে চরম লজ্জার মুখে পড়েছিল তারাপীঠ। তাই এবার বিদ্যুৎ দপ্তরের জেলা আধিকারিকদের তত্ত্বাবধানে গত কয়েক দিন ধরে তারাপীঠের বিদ্যুৎ সরবরাহ ব্যবস্থা ভালভাবে খতিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় মেরামতির কাজ করা হয়েছে। জেলা স্বাস্থ্য দপ্তরের পক্ষ থেকে মন্দির ও শ্মশান এলাকায় কয়েকটি মেডিক্যাল ক্যাম্প করা হচ্ছে, যেখানে প্রাথমিক ও জরুরী কালীন চিকিৎসার জন্য ওষুধপত্র–সহ একদল চিকিৎসক ও নার্স হাজির থাকবে। দমকল বিভাগের পক্ষ থেকেও প্রয়োজনীয় সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। তারাপীঠে পুজো দিতে আসা কোনও পুণ্যার্থী কোনওরকম বিপদ বা সমস্যায় পড়লে পুলিশেরর সাহায্য চাওয়ার হেল্পলাইন নম্বর:‌ ৮০০১৫৮৮৮৩১। পুলিসের পক্ষ থেকে বিশাল দুটি গ্যাস বেলুনে এই নম্বরটি লিখে তারাপীঠের আকাশে ওড়ানো হয়েছে। এছাড়া মন্দির ও শ্মশান–সহ তারাপীঠের কিছু অংশে এবারই প্রথম ওয়াই–ফাই সুবিধার ব্যাবস্থা করা হয়েছে।


তারাপীঠ মন্দিরের সেবায়েত সমিতির সভাপতি তারাময় চ্যাটার্জি জানালেন, রবিবার রাত ১টা ৫২ মিনিট থেকে সোমবার রাত ১২টা ১১ মিনিট পর্যন্ত এবার কৌশিকী অমাবস্যা তিথি থাকবে। রবি ও সোম, দুটি রাতেই কৌশিকী অমবস্যার তিথি থাকায় এবং তার আগে শনিবার পড়ে যাওয়ায় তারাপীঠে এবার রেকর্ড পরিমান ভিড় হবে বলে আশা করা হয়েছিল। কিন্তু উত্তরবঙ্গ, বিহার, অসমে বন্যা পরিস্থিতির জন্য প্রচুর পুণ্যার্থী এবার আসতে পারবেন না। অসম, পাটনা, ভাগলপুর, শিলিগুড়ি, বালুরঘাট, রায়গঞ্জ প্রভৃতি জায়গা থেকে ২–‌৩ মাস আগে অনেকে হোটেল বুক করে রেখেছিলেন। বন্যার জন্য তাঁরা শেষ মুহূর্তে বুকিং বাতিল করেছেন। তবে শনিবার সকাল থেকেই কলকাতা–সহ দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন জায়গা থেকে পুণ্যার্থীর ঢল নেমেছে। পাল্লা দিয়ে বাড়তে শুরু করেছে হোটেলের ঘরভাড়াও।

নি এম

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71