মঙ্গলবার, ২২ জানুয়ারি ২০১৯
মঙ্গলবার, ৯ই মাঘ ১৪২৫
 
 
আইসিসির কাছে প্রতিবাদ জানাবে বাংলাদেশ
প্রকাশ: ০৫:৪৩ am ২০-০৩-২০১৫ হালনাগাদ: ০৫:৪৩ am ২০-০৩-২০১৫
 
 
 


স্পোর্টস রিপোর্টার:খেলায় জয় পরাজয় স্বাভাবিক ঘটনা। এটা খেলারই অংশ। কিন্তু যখন খেলার নিরপেক্ষ হিসেবে বিবেচিত আম্পায়াররা কোন পক্ষের দিকে হেলে যায় তখনই ম্যাচটি অন্যরকম হয়ে দাড়ায়। তখন ম্যাচ আর ম্যাচ থাকে না। সেটা বির্তকিত ম্যাচ হয়ে দাড়ায়। ক্রিকেটকে বলা হয় জেল্টেল গেম। তাহলে এখন কিভাবে বলা যাবে। ম্যাচটা বাংলাদেশ হেরেছে ১০৯ রানে। শেষ হয়েছে বাংলাদেশের বিশ্বকাপ। কিন্তু মেলবোর্নের ২২ গজের লড়াইয়ে নগ্ন আম্পায়ারিংয়ের শিকার হয়েছে বাংলাদেশ। বিতর্কিত এসব আম্পায়ারিংয়ের কারণে আইসিসিতে আপিল করবে বাংলাদেশ। মেলবোর্নে টিভি চ্যানেলকে এমনটাই জানিয়েছেন আইসিসি সভাপতি আহম মুস্তফা কামাল (লোটাস) কামাল। ন্যাক্কার জনক সব সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে প্রয়োজনে আইসিসির সভাপতি পদ থেকে পদত্যাগের সিদ্ধান্ত নিবেন বলেও সাংবাদিকদের জানান লোটাস কামাল।

মেলবোর্নে বাংলাদেশি বিভিন্ন টিভি চ্যানেলকে লোটাস কামাল বলেন, একজন ক্রিকেট দর্শক হিসেবে আমি আশাহত। বিসিবি যদি আনুষ্ঠানিকভাবে প্রতিবাদ করে তবে আমরা বিষয়টি গুরুত্বের সাথে দেখবো। আম্পায়ারিং কি ইচ্ছাকৃতভাবে এমন হয়েছে কি না তাও খতিযে দেখা হবে। আমি মর্মাহত এমন ঘটনায়।

ম্যাচের দুই অন ফিল্ড আম্পায়ার ইংল্যান্ডের ইয়ান গোল্ড ও পাকিস্তানের আলিম দারের বিতর্কিত সিদ্ধান্তে গোটা ম্যাচ জুড়েই ভুগেছে বাংলাদেশ। এমনকি তৃতীয় আম্পায়ার স্টিভ ডেভিসও খলনায়কের ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছিলেন।
ভারতের প্রতি তাদের পক্ষপাতমূলক আচরণ পুড়িয়েছে কোটি টাইগার ভক্তের অন্তর। সেই ভক্তদের পাশে দাঁড়ালেন আইসিসি সভাপতি লোটাস কামাল। এদিকে আইসিসি সভাপতি আহম মুস্তফা কামাল (লোটাস কামাল) মেলবোর্নে বলেছেন, আইসিসি মানে ইন্ডিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল। আম্পায়ারদের বিতর্কিত সিদ্ধান্তের বিষয়ে প্রতিবাদ জানাবেন বলে জানিয়েছেন তিনি। আইসিসির আগামী সভায় এ বিষয়ে বক্তব্য রাখবেন লোটাস কামাল।

বাংলাদেশ-ভারত ম্যাচ শেষে মেলবোর্নে সাংবাদিকদের লোটাস কামাল বলেন, আইসিসি সভাপতি হিসেবে যা বলার আগামী সভায় বলবো।যা দেখলাম, আইসিসি মানে ইন্ডিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল। ইন্ডিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলের নেতৃত্ব করবো না।
তিনি আরও বলেন, যা দেখলাম, আম্পায়ারিং খুব বাজে ছিল। আম্পায়াদের কোনো কোয়ালিটি ছিল না। তারা মনে হয় সব ঠিক করে নেমেছে। কেউ জোর করে কিছু চাপিয়ে দিলে তা তো মেনে নিব না। সাবেক ক্রিকেটাররা কী বলছে দেখেন। ভারতীয়রাও আম্পায়ারদের বিরুদ্ধে বলছে। আমি অবশ্যই আইসিসিকে বলবো, এখানে অন্যায্য ছিল কিনা।
এদিকে সরব হচ্ছে বিসিবিও। ম্যাচটা পুড়িয়েছে কোটি টাইগার ভক্তের হৃদয়। বাংলাদেশের হার নয় ক্রিকেট প্রেমীদের কাঁদিয়েছে ম্যাচে আম্পায়ারদের পক্ষপাত মূলক সিদ্ধান্ত। আম্পায়ারদের বিতর্কিত সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে ঢাকার রাস্তায় মিছিল হয়েছে ম্যাচের পরই। শাহবাগে, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে মিছিল করেছে টাইগারস ফ্যান এসোসিয়েশন নামক একটি ফেসবুক গ্রুপ।
এই বিষয়ে সরব হচ্ছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। আইসিসিতে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ করার এখতিয়ার আছে বিসিবির। আর বিসিবি সেটি করবে বলে জানিয়েছেন সংস্থার সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।

তিনি সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, পুরো দুনিয়া দেখেছে আম্পায়ারিং কেমন হয়েছে। এটা তো হতে পারে না। একাধিক সিদ্ধান্ত এমন গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে আমাদের বিপক্ষে গেছে। আমি আইসিসি সভাপতির সঙ্গে বসেছিলাম। তাকে বলেছি, এর বিরুদ্ধে আমরা প্রতিবাদ জানাবো। দৈনিক রিপোর্টে তো আমরা দিচ্ছিই। আরো শক্তভাবে কি করা যায় সেটাও দেখা হচ্ছে।

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

সম্পাদক : সুকৃতি কুমার মন্ডল 

 খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

+8801711-98 15 52

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2019 Eibela.Com
Developed by: coder71