মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮
মঙ্গলবার, ১০ই আশ্বিন ১৪২৫
 
 
আরএসএস বিশ্বের সর্ববৃহৎ অরাজনৈতিক সংগঠন: মোহন ভাগবত
প্রকাশ: ০৪:১৬ pm ১২-১২-২০১৬ হালনাগাদ: ০৪:১৬ pm ১২-১২-২০১৬
 
 
 


নয়াদিল্লী::  আরএসএস বিশ্বের সর্ববৃহৎ অরাজনৈতিক সংগঠন বলে ব্যাখ্যা করেন মোহন ভাগবত৷ আজ রবিবার অরুণাচল প্রদেশের রাজধানী ইটানগরের ইন্দিরা গান্ধী ময়দানে আয়োজিত অরুণা চেতনা সম্মেলন শীর্ষক এক সমাবেশে মঞ্চ থেকে এমনই বার্তা দিলেন সংঘ-প্রধান মোহন ভাগবত। এদিন তিনি মন্তব্য করেন, ‘‘আরএসএসকে অন্য রাজনৈতিক দলের সঙ্গে গুলিয়ে ফেললে ভুল হবে৷ আরএসএস কী তা জানতে হলে অবশ্যই সংঘের স্বয়ংসেবক হতে হবে৷ সংঘ পরিবার বিশ্বের সর্ববৃহৎ একটি অরাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন৷’’

সংঘ পরিবারকে অরাজনৈতিক সংগঠন বলে ব্যাখ্যা দেওয়ার পাশাপাশি, সংগঠন যে দেশ, জাতি তথা সমাজের কল্যাণে আত্মনিয়োজিত তা-ও তুলে ধরেন তিনি। বলেন, সংঘ কোনও ধর্ম, জাতি ও কৃষ্টি-সংস্কৃতির বিরোধিতা করে না। তাই কারও ধর্ম পরিবর্তনও করতে উৎসাহ দেয় না। রাষ্ট্র নির্মাণে সুযোগ্য ব্যক্তি তৈরির কাজেই স্বয়ংসেবকরা অহোরাত্র নিয়োজিত রয়েছেন। তাছাড়া ভারত বিশ্বের সর্বশ্রেষ্ঠ আসন যাতে পায় সেই কাজই করে যাচ্ছে আরএসএস।

সংঘের ভাবধারা বা কর্মপদ্ধতির যাঁরা অপব্যাখ্যা করেন তাঁদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘‘আসুন, সংঘের সঙ্গে সম্পৃক্ত হোন৷ সংঘ কী তা বুঝুন৷ তারপর যা বলার বলবেন। কেননা, সংঘ কেবল অনুশাসনের মাধ্যমে দেশভক্ত তৈরি করা৷ নিজের নিজের কৃষ্টি-সংস্কৃতি ধরে রাখতে, উপযুক্ত শিক্ষা-দীক্ষায় উজ্জ্বল করার কাজই করে। শারীরিক, মানসিক বিকাশে উদ্ভাবনী শক্তি যোগানোর কাজ করে।’’ অরুণাচলের মানুষের দেশভক্তির ভূয়সী প্রশংসা করে মোহন ভাগবত বলেন, ‘‘প্রতিবেশী চিনের আগ্রাসনকে এই রাজ্যের জনসাধারণ বার বার প্রতিহত করেছেন। এর চেয়ে বড় দেশভক্তি আর কী হতে পারে৷’’

শুক্রবার কলকাতা থেকে সন্ধ্যা প্রায় সাড়ে সাতটা নাগাদ গুয়াহাটির কেশবধামে পৌঁছে প্রায় ঘণ্টাখানেক বিশ্রামের পর রাত ৯.২০ মিনিটের গুয়াহাটি-নাহরলগুন ট্রেনে শনিবার সকালে ইটানগর পৌঁছেন তিনি। তাঁর সঙ্গে সংঘের বিভিন্ন কেন্দ্রীয় ও প্রান্তের শীর্ষ পদাধিকারীদের পাশাপাশি রয়েছেন শ্রীকৃষ্ণ মোতলগও। গতকাল শনিবার সরসংঘচালক মোহন ভাগবতের হাত দিয়ে উদ্বোধিত হয়েছে নিরজুলির লেখিগ্রামে নবনির্মিত সংঘের প্রদেশ সদর কার্যালয়। কার্যালয় উদ্বোধন করে সেখানেই তিনি গোটা উত্তর-পূর্বাঞ্চলের বিভাগ প্রচারক, জেলা প্রচারক, প্রান্ত প্রচারক, ক্ষেত্রীয় প্রচারক, বিভিন্ন স্তরের কার্যবাহ-সহ অন্যান্য শীর্ষ পদাধিকারীদের সঙ্গে দফায় দফায় বৈঠক করেন। একইভাবে সোমবার পর্যন্ত পর্যায়ক্রমে প্রান্ত ও ক্ষেত্রীয় প্রচারক ও কার্যবাহকদের নিয়ে বৈঠকে বসবেন সংঘপ্রধান। টানা তিনদিন নানা কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করে গুয়াহাটিতে ১৩ তারিখ মঙ্গলবার বিবিধ ক্ষেত্রের প্রমুখ-প্রচারকদের সঙ্গেও বৈঠক করার কথা রয়েছে মোহন ভাগবতের।

 

 

আরও পুড়ুন::  হিন্দুদের হাতে অস্ত্র তুলে নেওয়ার সময় এসেছে: সুরেন্দ্র জৈন

 

এইবেলাডটকম/প্রচ

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71