রবিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০
রবিবার, ৫ই আশ্বিন ১৪২৭
সর্বশেষ
 
 
ইউনিয়নের ওয়ার্ড বিএনপি নেতার এখনও এত দাপট ! হিন্দুদের নিরাপদ জায়গা কোথায় ?
প্রকাশ: ১২:২৪ pm ০৯-০৪-২০২০ হালনাগাদ: ১২:৪০ pm ০৯-০৪-২০২০
 
মাগুরা প্রতিনিধি
 
 
 
 


দীর্ঘদিন আওয়ামীলীগ সরকার রাষ্ট্র ক্ষমতায় আছে। বিএনপির বড় বড় নেতারাও গর্তে ঢুকে গেছে। কিন্তু কি আশ্চর্য বিষয় মাগুরা জেলার মহম্মদপুর উপজেলা সদর ইউনিয়নের ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি মিজানুর রহমান আজও বিরল ক্ষমতা নিয়ে টিকে রয়েছে। তিনি অবৈধ ভাবে হিন্দুদের জমি দখল ও স্থাপনা ভেঙ্গে দিয়ে জীবননাশসহ ভারতে পাঠিয়ে দেয়ার হুমকিও দিচ্ছে। উল্লেখ্য যে, উক্ত উপজেলাটিতে এমপি হিসেবে দীর্ঘদিন ক্ষমতায় আছে সাবেক যুব ও ক্রিড়া প্রতিমন্ত্রী বীরেন শিকদার। আরও উল্লেখ্য যে বর্তমান ওসি হিসেবেও আছে একজন হিন্দু ধর্মালম্বী ব্যক্তি। সুতরাং প্রশ্ন আসতেই পারে হিন্দুরা তবে কোথায় নিরাপদ?

মঙ্গলবার (৭ এপ্রিল) দুপুরে উপজেলার বাজার রাধা নগর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। 

এ বিষয়ে মহম্মদপুর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করেন ভুক্তভোগী পরিবারের এক সদস্য শ্রী সুকান্ত চক্রবর্তী।

অভিযুক্ত বিএনপির নেতা মো: মিজানুর রহমান মহম্মদপুর উপজেলার সদর ইউনিয়নের পাঁচ নাম্বার ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি। তিনি শ্যামনগর গ্রামের মৃত ফসিয়ার মোল্যার ছেলে।

ভুক্তভোগী সুকান্ত চক্রবর্তী অভিযোগ করে বলেন, মহম্মদপুর সদরের বাজার রাজানগর গ্রামের প্রতিবন্ধী বিদ্যালয় সংলগ্ন আমাদের ৩২ নং দাগে ৬০ শতক পৈতিক জমি রয়েছে। জমিটি দীর্ঘদিন আমাদের ভোগ দখলে রয়েছে এবং জমির কিছু অংশে স্থাপনা নির্মানের কাজ চলছে। গত মঙ্গলবার বিএনপির নেতা মিজানুর রহমান নেতৃত্বে তার আপন সহোদর জাফর, ফিরোজসহ আরো ১০-১৫ জন নিয়ে হাতুড়ী, লোহার শাবল দিয়ে আমাদের নির্মানধীন স্থাপনা ভাংচুর করে। এ সময় আমরা বাধা দেওয়ার চেষ্টা করলে খুন করার হুমকি দিয়ে আমাদেরকে মারপিট করতে এগিয়ে আসলে আমরা প্রানের ভয়ে স্থান ত্যাগ করি। এছাড়া তারা আরো বলেন তোরা জমির কাছে পরবর্তীতে আসলে মেরে ফেলবো এবং পরিবারসহ লোকজনদের ভারতে পাঠিয়ে দেওয়ার হুমকি দেওয়া হয়। 

মহম্মদপুর থানার ওসি তারক বিশ্বাস বলেন, সংখ্যালঘু পরিবারের জমির স্থাপনা ভাংচুরের বিষয়ে থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী হয়েছে। এ ব্যাপারে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নি এম/

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
আরও খবর

 
 
 

 

E-mail: info.eibela@gmail.com

a concern of Eibela Ltd.

Request Mobile Site

Copyright © 2020 Eibela.Com
Developed by: coder71