মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০১৯
মঙ্গলবার, ৮ই শ্রাবণ ১৪২৬
 
 
ইসলামপুরে কালোবাজারে বিক্রির ৮১বস্তা ভিজিএফ চাল আটক
প্রকাশ: ০৪:৪১ pm ৩০-০৬-২০১৭ হালনাগাদ: ০৪:৪১ pm ৩০-০৬-২০১৭
 
 
 


ওসমান; (জামালপুর প্রতিনিধি): জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলার পলবান্ধা, নোয়ারপাড়া ও চরপুটিমারী ইউনিয়ন কালোবাজারে বিক্রির ৮১বস্তা ভিজিএফ চাল আটক করা হয়েছে। 

স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে, ঈদের আগে ইসলামপুরের নোয়ারপাড়া ইউনিয়নের ৫হাজার ৯১২জন দরিদ্র মানুষের জন্য সরকার ১০কেজি করে চাল/গম বরাদ্দ দেয়। ওই চাল সুবিধাভোগীদের মাঝে ঈদের আগে বিতরণ করার কথা থাকলেও চাল বিতরন শেষ হয়নি। একারণে নোয়ারপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফা ও ইউপি সদস্যগণ ওই চাল ঈদের পরদিন থেকে বিতরণ শুরু করেন।

২৯ জুন গতকাল বৃহস্পতিবার বিকালে নোয়ারপাড়া ইউপি চেয়ারম্যানের গোদাম থেকে ভিজিএফ’র ৬৬ বস্তা চাল কালোবাজারীদের কাছে বিক্রি করে। ওই সময় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ইসলামপুরের সহকারী কমিশনার ভুমি রুবেল মাহমুদ এর নেতৃত্বে একদল পুলিশ সেখানে যান। পরে তারা স্থানীয়দের সহযোগিতায় নোয়ারপাড়া গ্রামের মতিউর রহমান ও আব্বাসসহ ৪জন কালোবাজারীর মজুদ গুদাম থেকে ৬৬বস্তা ভিজিএফ’র চাল জব্দ করেন। এসময় কালোবাজারীরা পালিয়ে গেছে। একই দিন ইসলামপুরের ইউএনও এবিএম এহছানুল মামুন উপজেলার চরপুটিমারী ইউনিয়ন পরিষদের পাশ থেকে ভিজিএফ'র ৪বস্তা চাল পরিত্যাক্ত অবস্থায় জব্ধ করেছেন। এছাড়া ঈদের আগের দিন পলবান্ধা অভিযান চালিয়ে কালো বাজারে বিক্রির ১০বস্তা চাল আটক করেছে মেজিস্ট্রেট মেহেদী হাসান সুমন।

এলাকাবাসীর অভিযোগ, ঈদ উপলক্ষে দরিদ্র মানুষের খাদ্য সমস্যা সমাধানের জন্য সরকার ইসলামপুর পৌরসভাসহ উপজেলার ১২টি ইউনিয়নের ৫৮হাজার দরিদ্র মানুষের জন্য জন প্রতি ১০কেজি চাল ও ১৩কেজি গম বরাদ্ধ হয়। অথচ ঈদ শেষ হলেও ইসলামপুরের বেশিরভাগ ইউনিয়নে ভিজিএফ’র চাল/গম বন্টন শেষ হয়নি। এর কারণ হিসেবে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে, জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা ভিজিএফ’র চাল/গম প্রকৃত সুবিধাভোগীদের মাঝে সুষ্ঠু বন্টন নিশ্চিত করতে সচেষ্ট থাকলেও বেশিরভাগ স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা ভিজিএফ চাল/গমের স্লীপ প্রকৃত সুবিধা ভোগীদের হাতে পৌঁছায়নি। সিংহভাগ গরীবের মালের স্লিপ কালোবাজারীদেও কাছে বিক্রি করে দিয়েছে। ফলে চেয়ারম্যানের গুদামে চাল/গম নিতে ভিড় করেছে সুবিধাভোগীদের পরিবর্তে কালো বাজারীরা।

এব্যাপারে ইসলামপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবিএম এহছানুল মামুন জানান,কালোবাজারে বিক্রির নোয়ারপাড়া ইউনিয়ন থেকে ৬৬বস্তা এবং চরপুটিমারী ইউনিয়ন থেকে ৫বস্তা ও ঈদের আগের দিন পলবান্ধা ইউনিয়ন থেকে ১০বস্তা ভিজিএফ'র চাল জব্দ করে থানায় নেওয়া হয়েছে। এব্যাপারে ইসলামপুর থানায় পৃথক মামলার  প্রস্ততি চলছে।

 

এইবেলাডটকম/গোপাল/এসএম/সুমন

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

সম্পাদক : সুকৃতি কুমার মন্ডল 

 খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

+8801711-98 15 52

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2019 Eibela.Com
Developed by: coder71