মঙ্গলবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮
মঙ্গলবার, ৩রা আশ্বিন ১৪২৫
 
 
একদিনে ১০ জনের ফাঁসি কার্যকর করলো পাকিস্তান
প্রকাশ: ০৪:৫৩ am ১৮-০৩-২০১৫ হালনাগাদ: ০৪:৫৩ am ১৮-০৩-২০১৫
 
 
 


ঢাকা : একই দিনে মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্ত ১০ ব্যক্তির ফাঁসি কার্যকর করেছে পাকিস্তানে। আজ মঙ্গলবার বিভিন্ন আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের অনলাইন সংস্করণে প্রকাশিত খবরে এ তথ্য জানা গেছে। কর্মকর্তারা জানান, মৃত্যুদন্ডের ওপর ৬ বছরের নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়ার পর এটি দেশটিতে একদিনে সর্বোচ্চ সংখ্যক ফাঁসি কার্যকরের ঘটনা। দন্ডপ্রাপ্ত ৮ ব্যক্তির ফাঁসি কার্যকর করা হয় পাঞ্জাব প্রদেশে এবং বাকি ২ জনের ফাঁসি কার্যকর করা হয় করাচি নগরীতে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক কারা কর্মকর্তা একথা জানান।
পাকিস্তানে গোলযোগপূর্ণ উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের একটি স্কুলে জঙ্গি হামলায় অধিকাংশ শিশুসহ ১৫৪ জন নিহত হওয়ার পর পাকিস্তান সরকার গত ডিসেম্বর থেকে পুনরায় মৃত্যুদন্ড কার্যকর করতে শুরু করে।
প্রসঙ্গত ২০০৮ সাল থেকে বলৎ থাকা মৃত্যুদন্ড স্থগিতাদেশ ডিসেম্বরে কেবল আংশিকভাবে তুলে নেয়া হয়, যা কেবল সন্ত্রাসবাদের কারণে দন্ডপ্রাপ্তদের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য ছিল। তবে গত সপ্তাহে তা সব ধরনের গুরুতর অপরাধের ক্ষেত্রেও সম্প্রসারিত করা হয়।
মৃত্যুদন্ডাদেশ স্থগিত থাকাকালে ২০১২ সালে মাত্র একজনের মৃত্যুদন্ড কার্যকর করা হয়। ওই ব্যক্তি ছিলেন এক সৈন্য। সামরিক আদালত তাকে মৃত্যুদন্ড দেয়। পাঞ্জাবে হত্যাকান্ডের দায়ে ঝং শহরের তিন আসামি রাওয়ালপিন্ডির দু’জন, মুলতান থেকে একজন, ফয়সলাবাদ থেকে একজন এবং গুজরানওয়ালা থেকে একজনের ফাঁসি কার্যকর করা হয়।
মঙ্গলবার আরো দু’জনের ফাঁসি কার্যকর করার কথা থাকলেও নিহতের পরিবারের সঙ্গে আপোসরফার কারণে শেষ মুহূর্তে দু’জনের ফাঁসি কার্যকর স্থগিত করা হয়েছে। মানবাধিকার সংস্থা এমনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের হিসেব মতে পাকিস্তানে ৮ হাজারের বেশি কয়েদি মৃত্যুদন্ডের অপেক্ষায় রয়েছে যাদের অধিকাংশের আপিল প্রক্রিয়াও শেষ হয়েছে।
 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71