বুধবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮
বুধবার, ১১ই আশ্বিন ১৪২৫
 
 
কবি ও একাকি জীবন
প্রকাশ: ০২:৫১ am ১৫-০৪-২০১৭ হালনাগাদ: ০২:৫১ am ১৫-০৪-২০১৭
 
 
 


কবি ও একাকি জীবনঃ

- রাজিব শর্মা

মৃত্যুর পরোয়ানা নিয়ে হাজির যমদূত,
উচ্চস্বরে
জানতে চাইলো, “শেষ ইচ্ছা কি?” কবি বলেন,
“তোমার কাছে দিয়াশলাই হবে? একটা সিগারেট
খেতে চাই!” ভীষন অবাক যমদূত, কঠিন মুখে
এদিক ওদিক তাকিয়ে, দিয়াশলাই এগিয়ে দেন কবির
হাতে। আধশোয়া কবি পরম তৃষ্ণায় সিগারেট জ্বালান,
ধোঁয়া উড়াতে উড়াতে জিজ্ঞেস করেন,
“কেমন আছো, যমদূত?” যমদূতের কঠিন মুখ,
রাগান্বিত চোখ অনেকটা গোপন করে বলেন,
“মৃত্যুবাণ মারাই যার কাজ , সে আর কেমন থাকে,
কবি সাহেব?” মাথা তুলে এদিক ওদিক তাকান কবি,
আশেপাশে কেউ নেই, অথচ মাথায় খেলা
করছে কবিতার লাইন, নিরুপায় কবি আবার যমদূত কে
বলিলেন, “এক টুকরো সাদা কাগজ হবে? একটা
কলম হবে?”
নিমিষেই কলম কাগজ এনে যমদূত বললেন,
“আপনার সময় ফুরিয়ে আসছে, তাড়াতাড়ি শেষ করুন।”
“সময়, সে অনেক পেয়েছিলাম। এবার যেতে
চাই ।” দুই ঠোঠের মাঝখানে সিগারেট রেখে,
কবি লিখে চলেছেন জীবনের শেষ কবিতা।
“শেষ নি:শ্বাসের আগে তোমার হাতে পানি পান
করব বলে, আমি ছুটি নিয়েছি যমদূত থেকে, তবু
পাশে থাকোনি। অথচ আমি সিগারেট ছেড়েছিলুম
তোমার কথায় , আবার সিগারেট ধরলুম শেষবারের
মতো, তুমি কথা রাখোনি বলে। এখন শোধবোধ
হয়ে গেছে, আমার আর কোন চাওয়া পাওয়া নেই।
এতোদিনে আমি বুঝেছি, কবিদের পাশে প্রিয়তমা
রা থাকেনা, কবিদের একা বেঁচে থাকতে হয়, একা
মরে যেতে হয়।
তবু বলে যাই, ভালোবাসা নিও।” অত:পর কবি
বলিলেন, “যমদূত, আমি প্রস্তুত।” নিচু কন্ঠে যমদূত
বলে উঠেন, “আরেকটা সিগারেট হবে, কবি
সাহেব?”

এইবেলাডটকম/এবি

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71