রবিবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৮
রবিবার, ৪ঠা অগ্রহায়ণ ১৪২৫
 
 
কাঁঠালের পুষ্টিগুণ ও স্বাস্থ্য উপকারিতা
প্রকাশ: ১২:০৪ pm ২৮-০৩-২০১৫ হালনাগাদ: ১২:০৪ pm ২৮-০৩-২০১৫
 
 
 


বাংলাদেশের জাতীয় ফল কাঁঠাল। কাঁঠাল এর অনন্য আকার, আকৃতি ও সুস্বাদু গন্ধের জন্য অনেক সুপরিচিত। কাঁঠাল একটি স্বীকৃত গ্রীষ্মমণ্ডলীয় ফল। এটি একটি সুস্বাদু মিষ্টি ফল। গ্রীষ্মমণ্ডলীয় অন্যান্য ফলের মত এর মাঝেও অনেক ফাইবার, খনিজ পদার্থ ও ভিটামিন রয়েছে। এছাড়াও গরমে স্বাস্থ্যের বিভিন্ন উপকারে এর অবদান রয়েছে।
কাঁঠালের বৈজ্ঞানিক নাম হল “আরটোকারপাস হিটেরোফিলাস”। উদ্ভিদবিদ্যা অনুযায়ী এই জনপ্রিয় এশিয়ান গ্রীষ্মমণ্ডলীয় ফলটি “মরাসিয়া” পরিবারের এবং “আরটোকারপাস” মহাজাতির অন্তর্ভুক্ত। ডুমুর ও তুঁত একই প্রজাতির অন্তর্ভুক্ত।
কাঁঠালের গুণাগুণ সম্পর্কে জেনে নেয়া যাক
১. ১০০ গ্রাম কাঁঠালের মধ্যে রয়েছে ৯৫ ক্যালরি। কাঁঠালে ফ্রুক্টোজ ও সুক্রোজ এর ন্যায় চিনি রয়েছে। যা কাঁঠালকে তাড়াতাড়ি হজম করার শক্তি প্রদান করে। এতে খুব সহজেই কাঁঠাল হজম হয়ে যায়।
২. কাঁঠালে খাদ্যতালিকাগত ফাইবার সমৃদ্ধ। যা একটি ভালো বাল্ক জোলাপের সৃষ্টি করে। ফাইবার উপাদানগুলো কোলন থেকে ক্যান্সার মুক্ত করেন। যার ফলে রাসায়নিক নির্মূল করে কোলন শ্লৈষ্মিক ঝিল্লী রক্ষা করতে সাহায্য করে।
৩. তাজা ফলের মাঝে অল্প পরিমাণে ভিটামিন-এ, ফ্লাভোনয়েড পিগ্মেন্ট যেমন- ক্যারোটিন বি, জান্থিন, লুটিন ক্রিপ্টক্সানথিন-বি রয়েছে। এই উপাদানগুলো যৌগ অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট ও দৃষ্টিশক্তি বৃদ্ধিতে অত্যাবশ্যক ভূমিকা পালন করে। ভিটামিন-এ ঝিল্লী ও ত্বকের সৌহার্দ বজায় রাখতে সাহায্য করে।
প্রাকৃতিক ভিটামিন-এ সমৃদ্ধ ফল, যাতে ক্যারোটিন পাওয়া গেছে, এরা ফুসফুস ও মৌখিক গহ্বর এর ক্যান্সার দূর করতে সাহায্য করে।
৪. উপরন্তু, কাঁঠাল অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট ভিটামিন-সি এর অনেক ভালো একটি উৎস। এতে ১৩.৭ মিলিগ্রাম অথবা ২৩% আরডিএ রয়েছে। ভিটামিন-সি সমৃদ্ধ খাবার শরীরকে সংক্রামককারী এজেন্ট এর বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলে। বিভিন্ন ক্ষতিকারক মৌল পরিষ্কার করতে সাহায্য করে।
৫. কাঁঠাল ভিটামিন-বি কমপ্লেক্স এ সমৃদ্ধ একটি ফল। ভিটামিন-বি কমপ্লেক্স এ সমৃদ্ধ ফল পাওয়া বিরল। এতে ভালো পরিমাণে ভিটামিন-বি-৬, নিয়াসিন, রিবোফ্লাভিন এবং ফলিক এসিড রয়েছে।
৬. তাজা ফল পটাসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, ম্যাঙ্গানিজ এবং আয়রন এর অনেক ভালো একটি উৎস। পটাসিয়াম হার্ট রেট ও রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করতে সাহায্য করে। এছাড়াও শরীরের কোষ ও পানির পরিমাণ ঠিক রাখতে এই উপাদানগুলো কার্যকরী ভূমিকা পালন করে। এ সকল উপাদান কাঁঠালে পর্যাপ্ত পরিমাণে রয়েছে।
গ্রীষ্মের দিন আসতে বেশী দেরি নেই। বাঙ্গালীদের প্রিয় ফল কাঁঠাল। তাই, নিশ্চিন্তে এই গরমে কাঁঠালের স্বাদ উপভোগ করেন।–সূত্র: নিউট্রিশন। 
 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71