বুধবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৮
বুধবার, ৩০শে কার্তিক ১৪২৫
 
 
কাবুলে বোমা বিস্ফোরণে নিহত ৯৫
প্রকাশ: ১০:২৫ pm ২৭-০১-২০১৮ হালনাগাদ: ১০:২৫ pm ২৭-০১-২০১৮
 
এইবেলা ডেস্ক
 
 
 
 


আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে বিস্ফোরকভর্তি একটি অ্যাম্বুলেন্সের বিস্ফোরণে কমপক্ষে ৯৫ জন নিহত হয়েছে। শনিবার শহরের একটি ব্যস্ততম এলাকায় এই হামলার ঘটনা ঘটে। এতে আহত হয়েছেন ১৫৮ জন। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে আফগানিস্তানে চালানো বোমা হামলাগুলোর মধ্যে এটিই সবচেয়ে ভয়াবহ।

বার্তা সংস্থা এএফপির খবরে বলা হয়েছে, তালেবান এ হামলার দায় স্বীকার করেছে। এ নিয়ে চলতি সপ্তাহে দ্বিতীয়বারের মতো হামলা চালাল সন্ত্রাসী গোষ্ঠীটি। সাম্প্রতিক সময়ে তালেবান ও ইসলামিক স্টেটের (আইএস) চালানো একের পর এক হামলায় আফগানিস্তানে আতঙ্কের পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে।

বিস্ফোরণের পর ঘটনাস্থল যেন রক্তের বন্যা বয়ে যাচ্ছিল। মানুষের ছিন্নভিন্ন দেহ ছড়িয়ে ছিটিয়ে ছিল। গুরুতর আহত অবস্থায় অনেকে পড়েছিল। মানুষের কান্নায় ভারী হয়ে ওঠে পরিবেশ। আর যারা সৌভাগ্যক্রমে বেঁচে গিয়েছিলেন তারা আতঙ্কিত হয়ে ছুটোছুটি করছিল।

এএফপির এক প্রতিবেদক জানিয়েছেন, ঘটনাস্থলের কয়েক মিটার দূরেই স্থানীয় জমুরিয়েত হাসপাতাল। সেখানে হতাহতদের সামাল দিতে বেশ বেগ পেতে হচ্ছে চিকিৎসকদের। জায়গার অভাবে হাসপাতালের বারান্দায় ঠাঁই হয়েছে অনেকের।

আফগানিস্তানের সরকারি গণমাধ্যম কেন্দ্রের পরিচালক বারইয়ালাই হিলালি বলেন, ‘এই হামলায় এখনো পর্যন্ত ৯৫জনের মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছে ১৫৮জন।’ তিনি জানান, নিহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে। কারণ আহত কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

এমন একটি জায়গায় শনিবার বোমা হামলা চালানো হয়, যেখানে ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) মতো বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠানের কার্যালয় রয়েছে। কাবুলে ইইউ প্রতিনিধি দলকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। ইইউ-এর একজন কর্মকর্তা এএফপিকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

শনিবারের এ বিস্ফোরণে ঘটনাস্থলের দুই কিলোমিটার এলাকাজুড়ে বিভিন্ন ভবন কেঁপে ওঠে। দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একজন মুখপাত্র বলেন, আত্মঘাতী বোমা হামলাকারী বিস্ফোরকভর্তি অ্যাম্বুলেন্সটি নিয়ে জমুরিয়েত হাসপাতালের দিকে যাচ্ছিলেন। পুলিশের একটি তল্লাশিচৌকি পার হওয়ার পর দ্বিতীয় চৌকিতে গাড়িটিকে আটকানো হয়। অ্যাম্বুলেন্সে তল্লাশি চালানোর উদ্যোগ নেওয়া হলে আত্মঘাতী হামলাকারী বোমার বিস্ফোরণ ঘটান।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র নসরত রাহিমি এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, হতাহতদের বেশির ভাগই সাধারণ নাগরিক। নসরত দাবি করেন, তালেবান সংশ্লিষ্ট হাক্কানি নেটওয়ার্ক এ হামলার জন্য দায়ী এবং এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ৪ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তালেবান সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে হামলার দায় স্বীকার করেছে।

্উল্লেখ্য, গত বুধবার আফগানিস্তানের জালালাবাদ শহরে আন্তর্জাতিক দাতা সংস্থা সেভ দ্য চিলড্রেনের দপ্তরে সশস্ত্র বন্দুকধারীরা হামলা চালায়। এতে দুজন নিহত ও ১৪ জন আহত হয়। এর আগে গত ২০ জানুয়ারি রাতে কাবুলের বিলাসবহুল ইন্টারকন্টিনেন্টাল হোটেলে ঢুকে কয়েকজন বন্দুকধারী হামলা চালায়। এতে ১৪ বিদেশিসহ ৪০ জন নিহত হয়।

নি এম/

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71