মঙ্গলবার, ২০ নভেম্বর ২০১৮
মঙ্গলবার, ৬ই অগ্রহায়ণ ১৪২৫
 
 
কিভাবে এই জগত সৃষ্টি হলো?
প্রকাশ: ০১:৫৮ pm ২৪-১২-২০১৭ হালনাগাদ: ০১:৫৮ pm ২৪-১২-২০১৭
 
এইবেলা ডেস্ক
 
 
 
 


ভগবান শ্রীকৃষ্ণের একটি অংশ প্রকাশ হচ্ছেন মহাবিষ্ণু। সৃষ্টির আদিতে মহাবিষ্ণু বিরাট রুপ ধারণ করে মহা শুণ্যে শায়িত হলেন। তখন তার দেহের অসংখ্য লোমরন্ধ্র এবং প্রশ্বাস থেকে অনন্তকোটি বুদ বুদ উৎপন্ন করলেন। এই বুদ বুদ গুলোর মধ্যে তিনি আবার গর্ভদোকশায়ী বিষ্ণু রুপে নিজেকে প্রকাশ করলেন। এই এক একটি বুদ বুদ গুলোই হচ্ছে এক একটি বিশাল ব্রহ্মান্ড। বুদ বুদ গুলো আবার প্রভুর ঘাম দারা অর্ধেক অংশ পুর্ণ করলেন। আর বাকি অর্ধেক শুণ্য অংশের মধ্যে নাভিকমল থেকে ব্রম্মাকে সৃষ্টি করলেন। প্রভুর নির্দেশে প্রতিটি ব্রহ্মা এভাবে তাদের নিজ নিজ ব্রহ্মান্ডের শুণ্য অংশে সৃষ্টি কার্য রচনা করা শুরু করলেন অর্থাৎ পশু, পাখি, মানুষ, গাছপালা, প্রকৃতি ইত্যাদি সৃষ্টি করলেন। ভগবান আবার ক্ষিরদকশায়ী বিষ্ণু রুপে প্রতিটি জীবের হৃদয়ে প্রবেশ করেন। যাকে আমরা পরমাত্মা বলে জানি। তিনি আমাদের সকল ভালো মন্দ কর্মের সাক্ষী। 

মহাবিষ্ণু যখন শ্বাস গ্রহণ করবেন তখন মহাপ্রলয় ঘটবে। সমস্ত সৃষ্টি সেদিন প্রভুর মুখ গহবরে বিলিন হয়ে যাবে।

শ্রীকৃষ্ণ থেকেই সকল কিছুর সৃষ্টি। গীতায় ভগবান শ্রীকৃষ্ণ বলেছেন “আমার থেকে শ্রেষ্ঠ আর কেউ নেই”। তিনি সর্ব কারনের পরম কারন ও অনাদিরো আদি।

নি এম/

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71