শুক্রবার, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯
শুক্রবার, ১০ই ফাল্গুন ১৪২৫
 
 
কুমিল্লায় হিন্দু প্রতিবন্ধীকে গণধর্ষণ, মামলা করায় মা-মেয়ে গ্রাম ছাড়া
প্রকাশ: ০২:০৯ pm ০৩-০৬-২০১৮ হালনাগাদ: ০২:১১ pm ০৩-০৬-২০১৮
 
কুমিল্লা প্রতিনিধি
 
 
 
 


কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার কামাল্লা গ্রামে এক হিন্দু প্রতিবন্ধী মেয়েকে (১৬) গণধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় মা বাদী হয়ে মামলা করেন। তবে অভিযুক্তরা হত্যার হুমকি দেয়ায় মা-মেয়ে এখন গ্রাম ছাড়া।
 
অভিযুক্তরা হলেন- উপজেলার কামাল্লা গ্রামের রুক্কু মিয়ার ছেলে ইয়াবা ব্যাবসায়ী জামাল (৩৫) ও একই গ্রামের সাবেক চেয়ারম্যান সামাদ মিয়ার ছেলে আরিফ (২৮)।
 
মামলা ও সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, গত ১৩মে সন্ধ্যায় প্রতিবন্ধী ওই হিন্দু মেয়ে বাড়ির পাশে টিউবওয়েলে পানি আনতে যান। সেখানে আগে থেকে ওত পেতে থাকা জামাল, আরিফ ও তাদের সহযোগীরা তার মুখ চেপে ধরে কামাল্লা ইউনিয়ন পরিষদের পাশে পরিত্যক্ত তাঁতী বাড়িতে নিয়ে গণধর্ষণ করেন। পরে ভোর রাতে একই গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে শরিফ তাকে বাড়িতে রেখে যান।
 
ঘটনাটি মেয়েটির মা পরদিন ১৪মে (সোমবার) স্থানীয় ইউপি মেম্বার জামালকে ঘটনাটি অবহিত করেন। জামাল শক্ত বিচার করে দিবেন বলে আশ্বস্ত করেন। কিন্তু ১৮দিন অতিবাহিত হলেও কোন বিচার না পেয়ে অসহায় মা বাদী হয়ে জামাল ও আরিফ দুজনের নাম উল্লেখ করে শনিবার মুরাদনগর থানায় মামলা দায়ের করেন। এ খবর এলাকায় ছড়িয়ে গেলে অভিযুক্তরা মা-মেয়েকে হত্যা হুমকি দেন। এরপর থেকে তাদের আর এলাকায় দেখা যাচ্ছে না।
 
ওই মা বলেন, বিচারে গরিমসি দেখে মামলা করেছি। মামলার কথা শুনে জামাল আমাকে ও আমার মেয়েকে হত্যা করবে বলে হুমকি দেন। আমি ভয়ে মেয়েকে নিয়ে গ্রাম ছেড়েছি।
 
আরিফের বাবা সামাদ মিয়া বলেন, বর্তমানে আমি কামাল্লা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি। শত্রুতার জের ধরে আমার ছেলেকে এ ঘটনায় জড়ানো হয়েছে।
 
মুরাদনগর থানার ওসি একে এম মনজুর আলম বলেন, থানায় মামলা হয়েছে। আসামি গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। মা-মেয়েকে সব রকমের সহযোগিতা দিব আমরা।

নি এম/

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

সম্পাদক : সুকৃতি কুমার মন্ডল 

 খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

+8801711-98 15 52

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2019 Eibela.Com
Developed by: coder71