বুধবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৮
বুধবার, ২৮শে অগ্রহায়ণ ১৪২৫
 
 
কুড়িগ্রামে বিলুপ্তির পথে উড়ুন, গাইন,ও ঢেঁকি
প্রকাশ: ০৪:৪৩ pm ২১-১১-২০১৮ হালনাগাদ: ০৪:৪৩ pm ২১-১১-২০১৮
 
কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি  
 
 
 
 


কুড়িগ্রামে কালের আবর্তনে যান্ত্রীককায়নের যুগে ঢেঁকি ও উড়ুন এর ব্যাবহার এখন অনেক কমে গেছে। ধান বা মসলা ভাঙ্গানোর জন্য এক সময় গ্রাম অঞ্চলে জনপ্রিয় ছিল ঢেঁকি ও উড়ুন। কাঠের মধ্যে গর্ত করে বস্তুটিকে অঞ্চল ভেদে বিভিন্ন নামে ডাকা হয়। উড়ুন, করাল, উলকি। এতে ধান ভেঙ্গে চাউল, বিভিন্ন মসলা, চালের আটা তৈরিতে ব্যাবহার করা হয়। ঢেঁকি পায়ে ভর দিয়ে, আর উড়ুন এর জন্য একটি গাইন (গ্রামের ভাষা) দিয়ে আঘাত করলে ধান বা অন্যান্য খাদ্য সামগ্রি সহজে ভেঙ্গে যায়। এখনো উড়ুন ১০০০টাকা থেকে ১৫০০টাকা পর্যন্ত বিক্রি করা হয়।

ফুলবাড়ি গংগারহাট ইন্দিরারপাড় এলাকার বাসিন্দা সাদের দীর্ঘদিন ধরে উড়ুন বানিয়ে হাটবাজারে বিক্রি করে আসছে। তিনি জানান, আগের মতো উড়ুন আর ঢেঁকির চাহিদা নাই। এখন মানুষ মেসিনে দ্রুত সময় ধান, আটা ভানে। গ্রামে এখনও কিছু গ্রামে দেখা যায় উড়ুন আর ঢেকির ব্যাবহার। পিঠা বানানোর কাজে ব্যাবহার করা হয় ঢেঁকি বা উড়ুন। উড়ুন এর বিষয় জানতে চাইলে,গংগারহাট এম,এ,এস উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক জয়নাল আবেদীন ও ধর্মপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক লুৎফর রহমান জানান, ঢেঁকি বা উড়ুন এক সময় ধনী আভিজাত্যের প্রতিক ছিল। এখন বিভিন্ন যান্ত্রিক পদ্ধতি আসার ফলে হারিয়ে যাচ্ছে এই সব প্রাচীন ঐতিহ্য।

নি এম/রতি কান্ত 

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71