বুধবার, ২৩ জানুয়ারি ২০১৯
বুধবার, ১০ই মাঘ ১৪২৫
সর্বশেষ
 
 
কয়েকজন হাফমন্ত্রী দিয়ে ক্ষমতায়ন হয় না : সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত
প্রকাশ: ১০:৫১ pm ০৯-০২-২০১৬ হালনাগাদ: ১০:৫১ pm ০৯-০২-২০১৬
 
 
 


আন্তর্জাতিক ডেস্ক: প্রবীন রাজনীতিবিদ ও আওয়ামীলীগ নেতা সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত বলেছেন, সংখ্যালঘুর ক্ষমতায়ন ছাড়া বাংলাদেশে ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের সমস্যা সমাধান সম্ভব নয়। তিনি বলেন, পাকিস্তান আমলের মত দু’জন হাফমন্ত্রী দিয়ে ক্ষমতায়ন হয় না।

গতকাল রবিবার নিউইয়র্কের উডসাইডে গুলশান টেরেসে বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ ইউএসএ’র নতুন অনুমোদিত কমিটির অভিষেক ও পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির ভাষণে সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত আরো বলেন, এখনই শেষ কথা বলে দিয়েন না, দক্ষিন এশিয়া এসময়ে পৃথিবীর মধ্যে সবচেয়ে শান্তিপূর্ণ এলাকা। মনে রাখতে হবে সরকার কিসের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে। হেফাজতের কথা ভুলে গেছেন? যুদ্ধপরাধীদের বাঁচানোর জন্যে আপনাদের আমেরিকা থেকে ফোন যায়, তৃতীয় বিশ্বের একটি দেশের একজন প্রধানমন্ত্রী কতটা সাহসী হলে সব বাধা উপেক্ষা করে গিয়ে যেতে পারেন তা বুঝতে হবে।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের নবনির্বাচিত সভাপতি নবেন্দু বিকাশ দত্ত। মঞ্চে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, জাতিসংঘে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি ও রাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেন, নিউইয়র্কে বাংলাদেশের কনসাল জেনারেল শামীম আহসান, ঐক্য পরিষদ ইউএসএ’র চেয়ারম্যান এটর্নী অশোক কর্মকার, সভাপতি জেমস রায় ও নয়ন বড়ুয়া প্রমুখ।

অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন নবনির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক স্বপন দাস। অনুষ্ঠানে ঐক্য পরিষদের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা এবং উপদেষ্টা সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত আরো বলেন, এসময়ে সারা বিশ্ব উত্তাল। মানবাধিকারের সংজ্ঞা পাল্টে যাচ্ছে। ইউরোপে জীবন বাঁচানোর জন্যে সিরীয় শরণার্থীরা ঢুকছে। মনে পরে ১৯৭১-এর কথা? সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত তার বক্তব্যে ঐক্য পরিষদের নেতা শিতাংশু গুহ-এর প্রসঙ্গ টানেন।

তিনি বলেন, ঐক্য তো হয়ে গেল, কিন্তু কিছু লোক তো এখনো বাইরে আছে, তাদেরও আনেন। অনুষ্ঠানে সৌজন্যমূলক বক্তব্য রাখেন রাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেন ও কনসাল জেনারেল শামীম আহসান। অনুষ্ঠানে ঐক্য পরিষদের বক্তারা বাংলাদেশে সংখ্যালঘু নির্যাতনের চিত্র তুলে ধরেন। এতে প্রায় ২শ’ প্রবাসী যোগ দেন। এতে মিশনের বিডি মিত্র, শিতাংশু গুহ, রমেশ নাথ, মহিউদ্দিন আহমদ, ডা. প্রভাত দাস সহ গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। এ উপলক্ষ্যে একটি স্মরনিকা প্রকাশিত হয়। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও নৈশভোজের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠান শেষ হয়।


এইবেলাডটকম/এমআর
 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

সম্পাদক : সুকৃতি কুমার মন্ডল 

 খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

+8801711-98 15 52

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2019 Eibela.Com
Developed by: coder71