মঙ্গলবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯
মঙ্গলবার, ৭ই ফাল্গুন ১৪২৫
 
 
খুলনা সিটি নির্বাচন সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও গ্রহণযোগ্য হবে: সিইসি
প্রকাশ: ০৯:৪৮ am ০৭-০৫-২০১৮ হালনাগাদ: ০৯:৪৮ am ০৭-০৫-২০১৮
 
খুলনা প্রতিনিধি
 
 
 
 


খুলনা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ডের কোনো ঘাটতি নেই উল্লেখ করে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হুদা বলেছেন, ১৫ মে খুলনায় নির্বাচন হবে সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও গ্রহণযোগ্য।

তিনি বলেন, ভোটাররা যাতে স্বতঃস্ফূর্তভাবে এবং নিরাপদে ভোট কেন্দ্রে গিয়ে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারেন, তার সকল ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে নির্বাচন কমিশন। এ লক্ষ্যে খুলনা বিভাগের আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় নিয়োজিত প্রতিষ্ঠানগুলো দক্ষতার সঙ্গে কাজ করে যাচ্ছে।

রবিবার খুলনা সার্কিট হাউসের সম্মেলন কক্ষে সিটি নির্বাচন উপলক্ষে বিভাগীয় সমন্বয় কমিটির সভা শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে প্রধান নির্বাচন কমিশনার এসব কথা বলেন।

প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেন, নির্বাচন পরিচালনার কাজে কোন গাফিলতি ও পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ পাওয়া গেলে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। একই সাথে কোনো নিরপরাধ ব্যক্তি যেন হয়রানির শিকার না হয় সেদিকেও তীক্ষ নজর রাখতে হবে।

বিএনপি নেতা-কর্মীদের গণগ্রেফতার করা হচ্ছে- এমন অভিযোগ প্রসঙ্গে প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেন, বিএনপির এ অভিযোগ সঠিক নয়। যাদের বিরুদ্ধে মামলা রয়েছে, সন্ত্রাসী; তাদের গ্রেফতার করছে পুলিশ। নির্বাচনে বিঘ্ন সৃষ্টি করতে পারে এমন ব্যক্তি ও অবৈধ অস্ত্রধারীদের গ্রেফতার করা হচ্ছে।

পুলিশের শীর্ষ পদ এবং বিভিন্ন থানার ওসিদের বদলির প্রসঙ্গে তিনি বলেন, নির্বাচনে এখনো পর্যন্ত পুলিশ তাদের দায়িত্ব পালনে কোনো ব্যত্যয় ঘটায়নি। যে কারণে তাদের বদলির বিষয় নিয়ে ভাবা হচ্ছে না।

সভায় খুলনা বিভাগীয় কমিশনার লোকমান হোসেন মিয়া সভাপতিত্ব করেন। বিশেষ অতিথি ছিলেন— নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ। এতে খুলনা রেঞ্জের ডিআইজি মো. দিদার আহম্মেদ, খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মো. হুমায়ুন কবীর, বিজিবির সেক্টর কমান্ডার তৌহিদুল ইসলাম, র্যাব-৬ এর অধিনায়ক খন্দকার রফিকুল ইসলাম, জেলা প্রশাসক মো. আমিন উল আহসান, পুলিশ সুপার মো. নিজামুল হক মোল্যাসহ এনএসআই, ডিজিএফআই, আনসার ও অন্যান্য বিভাগের প্রধানরা উপস্থিত ছিলেন।

বিকালে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদা খুলনা সরকারি মহিলা কলেজ মিলনায়তনে সিটি নির্বাচনে পাঁচ মেয়র প্রার্থী, কাউন্সিলর প্রার্থী ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন।

নির্বাচন যাতে অবাধ, নিরপেক্ষ ও শান্তিপূর্ণ হয় সে জন্য সন্ত্রাসী, কালো টাকার ছড়াছড়ি ও অবৈধ অস্ত্রধারীদের আনাগোনা বন্ধে ইসির প্রতি কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানান মেয়র ও অধিকাংশ কাউন্সিলর প্রার্থীরা। সভায় বেশ কয়েকজন কাউন্সিলর তাদের প্রচার-প্রচারণায় বাধা প্রদান, এজেন্টদের হুমকি, পুলিশকে ব্যবহার করে মামলার হুমকি দেয়ার অভিযোগ করেন। এছাড়া আওয়ামী লীগ মনোনীত বেশ কয়েকজন কাউন্সিলর প্রার্থী রিটার্নিং অফিসারসহ কয়েকজন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে দলীয় সম্পৃক্ততার অভিযোগ এনে তাদের প্রত্যাহারের দাবি জানান।

নি এম/

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

সম্পাদক : সুকৃতি কুমার মন্ডল 

 খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

+8801711-98 15 52

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2019 Eibela.Com
Developed by: coder71