শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮
শুক্রবার, ৬ই আশ্বিন ১৪২৫
 
 
গিজার পিরামিড রহস্য
প্রকাশ: ১২:৪১ pm ১১-১২-২০১৬ হালনাগাদ: ১২:৪১ pm ১১-১২-২০১৬
 
 
 


বিশ্বের যে ক’টি রহস্য আজও মানুষকে ভাবায়, তার মধ্যে অন্তম যে পিরামিড, তা একবাক্যে স্বীকার করবেন রহস্যপ্রিয় ব্যক্তি মাত্রেই।

তেমনভাবে দেখতে গেলে মিশরের প্রায় প্রতিটি পিরামিডের পিছনেই রয়েছে কোনও না কোনও রহস্য-কাহিনি। তুতানখামেনের সমাধি বা আবু সিম্বাল মন্দিরের রহস্য যেমন আজও অসংখ্য লেখক-তথ্যচিত্রকার-শিল্পীকে আকর্ষণ করে, তেমনই গিজার পিরামিড-সংক্রান্ত বহু কিছুই তীব্র আবেদন রাখে মিশর-ভাবুকদের কাছে।

গিজার বিখ্যাত গ্রেট পিরামিডকে নিয়ে কিছু তথ্য রইল আপনার ভাবনার খোরাক হিসেবে।

১. গ্রেট পিরামিড প্রায় ২,৩০০,০০০টি পাথরের ব্লক দিয়ে তৈরি। এদের ওজন ২ থেকে ২০ টনের মধ্যে। কিছু ব্লক অবশ্য ৫০ টনের মতো ওজনের।

২. পিরামিডের অভ্যন্তরের তাপমাত্রা সারা বছর এক থাকে— ২০ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এই তাপমান আর পৃথিবীর গড় তাপমান একই অঙ্কের।

৩. গ্রেট পিরামিডের ওজন ৫,৯৫৫,০০০ টন। ১০^৮ দিয়ে গুণ করলে পৃথিবীর ওজন পাওয়া যায়।

৪. গ্রেট পিরামিডের ভিতরে একটি জলযান পাওয়া গিয়েছে, যা এখনও পর্যন্ত অটুট অবস্থায় প্রাপ্ত প্রাচীনতম জলযান। লেবানিজ সেডার কাঠে তৈরি এই নৌকা ৪৭ মিটার লম্বা।

৫. পিরামডের মূল সমাধিকক্ষ থেকে ৪টি প্যাসেজ চারদিকে গিয়েছে। এগুলি এক একটি ধোঁকা। এই পথগুলি শেষ পর্যন্ত কোথাও পৌঁছয় না।

৬. চাঁদ থেকেও দেখা যায় এই পিরামিডকে।

৭. আদিতে নাকি গ্রেট বিরামিডের উপরে সাদা বেলেপাথরের একটা আস্তরণ ছিল সময়ের সঙ্গে সঙ্গে তা খসে গিয়েছে। এই আস্তরণের কারণে এক সময়ে নাকি ঝকঝক করতো এই পিরামিড।

৮. ঠিক কী প্রক্রিয়ায় গ্রেট পিরামিড তৈরি হয়েছিল, তা নিয়ে বিশেষজ্ঞরা আজও একমত হতে পারেননি।

এইবেলাডটকম/এএস

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71