মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০১৯
মঙ্গলবার, ১লা শ্রাবণ ১৪২৬
 
 
রিট খারিজ
ঘাটাইলের চার ইউনিয়নে নির্বাচনে বাধা নেই 
প্রকাশ: ১১:২৭ pm ০৭-০৪-২০১৭ হালনাগাদ: ১১:২৭ pm ০৭-০৪-২০১৭
 
 
 


ঘাটাইল (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি : ঘাটাইল উপজেলার চার ইউনিয়নে নির্বাচন নিয়ে সংশয় কেটে গেছে।

গত ২ এপ্রিল সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ ইউনিয়ন বিভক্তি নিয়ে করা রিটটি খারিজ করে দেয়ায় এই চার ইউনিয়নে নির্বাচনের আর কোন বাধা রইল না।

মামলার বিবাদী পক্ষের কৌশলী এডভোকেট শহিদুল ইসলাম জানান, গত ৩১/০১/১৬ তারিখের হাইকোর্টে ইউনিয়ন বিভক্তি নিয়ে দাখিলকৃত রীট পিটিশন নং-৮৭০০/২০১৪ এর ৩১/০৭/২০১৬ তারিখের হাইকোর্টের রায় এবং সিভিল পিটিশন নং-৩১৩২/২০১৬ গত ২ এপ্রিল সুপ্রীম কোর্টের আপীল বিভাগ রিটটি খারিজ করে দেয়।

এর ফলে চার ইউনিয়নে নির্বাচন নিয়ে সংশয় কেটে গেছে।যে সব ইউনিয়নে নির্বাচনে আর বাধা নেই সেগুলি হল উপজেলার ধলাপাড়া, সন্ধানপুর এবং নবগঠিত সাগরদিঘী ও সংগ্রামপুর।

জানা যায়, ঘাটাইল উপজেলার ধলাপাড়া, রসুলপুর ও সন্ধানপুর এই তিনটি ইউনিয়ন আয়তন জনসংখ্যার ও ভোটার সংখ্যার দিক দিয়ে বৃহৎ। জনস্বার্থে এই তিনটি ইউনিয়ন ভেঙ্গে আরো তিনটি নতুন ইউনিয়ন সহ ছয়টি ইউনিয়ন গঠনের প্রস্তাব করে স্থানীয় উপজেলা প্রশাসন ২০১৪ সালের ১২ আগষ্ট স্থানীয় সরকার মন্ত্রনালয়ে পাঠায়।

সীমানা ও ভোটার নির্ধারন করে পাঠানো ইউনিয়ন ছয়টি হল ধলাপাড়া, সাগরদীঘি, রসুলপুর, লক্ষিন্দর ,সন্ধানপুর ও সংগ্রামপুর। উপজেলা প্রশাসনের আবেদনের পেক্ষিতে সরকার গত ২১ আগষ্ট ২০১৪ সালে স্থানীয় সরকার (ইউনিয়ন পরিষদ) আইন,২০০৯ এর ১৩ এর ৮ উপ-ধারা মোতাবেক বিভাজিত ছয়টি ইউনিয়নের গেজেট বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে।

গেজেট প্রকাশের পর পরই রসুলপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আবুল কাশেম ও ইউপি সদস্য আবুল হাশেম সন্ধানপুর ইউনিয়নের রেজাউল করিম এবং ধলাপাড়া ইউনিয়নের পক্ষে লিটন ভূইয়া ও কোরবান আলী পৃথক পৃথক ভাবে হাইকোর্টে ইউনিয়ন বিভক্তির বিরুদ্ধে রিট করেন।

যাহা বিচারাধীন ছিল।স্থানীয় সরকার (ইউনিয়ন পরিষদ) আইন, ২০০৯ এর বিধানে মামলা ও সীমানা সংক্রান্ত জটিলতা থাকলে তা নিস্প্রতি না হওয়া পর্যন্ত নির্বাচন না করার বিধান রয়েছে।এ অবস্থায় রিটটি নিস্প্রতি না হওয়ায় এ তিনটি সহ নব গঠিত তিনটি  ইউনিয়নে নির্বাচন করতে পারছিলনা নির্বাচন কমিশন।

এ অবস্থায় গত ২ এপ্রিল সুপ্রীম কোর্টের আপীল বিভাগ তিন  ইউনিয়নের মধ্যে সন্ধানপুর ও ধলাপাড়া এই দুই ইউনিয়নের বিভক্তি নিয়ে করা রিটটি খারিজ করে দেয়। এর ফলে ধলাপাড়া, সন্ধানপুর এবং নবগঠিত সাগরদিঘী, সংগ্রামপুর ইউনিয়নে নির্বাচনের বাধা রইল না। রিট নিস্প্রতি না হওয়ায় রসুলপুর ও নব গঠিত লক্ষিন্দর ইউনিয়নের নির্বাচন ঝুলে গেল।

উল্লেখ্য যে, গত ২০১৬ সালে ৪ জুন অনুষ্ঠিত ইউপি  নির্বাচনে এসব ইউনিয়ন বাদ রেখে বাকী ৮ ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাচন অফিসার মোঃ মাহমুদুল আলম বলেন, আদালতের রায় পেলে নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের নির্দেশনা অনুযায়ী ব্যাবস্থা গ্রহন করা হবে।

এ অবস্থায় উক্ত ইউনিয়ন গুলোর নির্বাচনও নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের চিঠি ও নির্দেশনা মোতাবেক অনুষ্ঠিত হবে। 

এইবেলাডটকম/উত্তম/এফএআর

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

সম্পাদক : সুকৃতি কুমার মন্ডল 

 খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

+8801711-98 15 52

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2019 Eibela.Com
Developed by: coder71