বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০১৯
বৃহঃস্পতিবার, ১২ই বৈশাখ ১৪২৬
সর্বশেষ
 
 
ডিমলায় শেফালী নির্যাতনের মামলার হুকুমদাতা গ্রেফতার
প্রকাশ: ০৫:১৭ pm ২৩-০৮-২০১৭ হালনাগাদ: ০৫:১৭ pm ২৩-০৮-২০১৭
 
নীলফামারী প্রতিনিধি :
 
 
 
 


নীলফামারীর ডিমলার খালিশাচাঁপানী ইউনিয়নের বাইশপুকুর কোলনঝাড় গ্রামে গরু চুরির মিথ্যা অভিযোগে অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূ শেফালী বেগমকে গাছের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতনের ঘটনার মামলার হুকুমদাতা প্রধান আসামী নুর আলম শাহ (৫৮) গ্রেফতার হয়েছে। 

সোমবার (২১ আগষ্ট) রাত ৮ টার দিকে, নীলফামারী র‌্যাব-১৩ ক্যাম্পের ভারপ্রাপ্ত কোম্পানী অধিনায়ক এএসপি মোঃ শাহীনুর কবির এর নেতৃতে জেলা শহরের রেলষ্টেশন থেকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত নুর আলম ডিমলা উপজেলার ডালিয়া এলাকার মৃত আবুল হোসেনের ছেলে। মঙ্গলবার (২২ আগষ্ট) ডিমলা থানার মাধ্যমে জেলা করাগারে প্রেরন করা হয়। 

উল্লেখ্য, শুক্রবার (৪ আগষ্ট/২০১৭) নীলফামারীর ডিমলা উপজেলার খালিশা চাঁপানী ইউনিয়নের বাইশপুকুর কোলন ঝাড় গ্রামে লালন মিয়ার স্ত্রী শেফালী বেগম (৩২) নামের ওই গৃহবধুকে গাছের সঙ্গে বেঁধে শারীরিক নির্যাতন করা হয়। ঘটনাটি ভিন্নখাতে প্রবাহিত করতে প্রভাবশালী নেতারা দিনদুপুরে শেফালী বেগম গরু চুরি করে নিয়ে যাচ্ছে মর্মে গরুসহ গাছে বেঁধে পুলিশকে সংবাদ দেয়।

পুলিশ এসে, গরু চুরি ঘটনা মিথ্যে বুঝতে পেরে শেফালীকে উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসা নেওয়ার পরামর্শ দেয়। পরে অবস্থার অবনতি হলে শনিবার (৫ আগষ্ট/২০১৭) সকালে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার (৭ আগষ্ট) সময়ের আগে ৯০০ গ্রাম ওজন নিয়ে শেফালী একটি কন্যা সন্তান জন্ম দেয়। শিশুটিকে নিবিড় পরিচর্চ্চা কেন্দ্রে রাখা হয়েছিল। বুধবার (৯ আগষ্ট) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে নবজাতকটি মারা যায়। এর আগে শেফালীর মামা সহিদুল ইসলাম (৬ আগষ্ট) রাতে ডিমলা থানায় ১৯জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেন (নম্বর ০৬)। ওই মামলায় পুলিশ তিনজনকে গ্রেফতার করে আদালতে মাধ্যমে জেলা কারাগারে প্রেরন করে।

রংপুর মেডিকেল হতে ফিরে শেফালী নিজে মোট ৩১ জন আসামী করে পূর্বের মামলার সঙ্গে সংযুক্ত করে ডিমলা থানায় আবেদন করে। সেটি আদালতে প্রেরন করা হলে আদালত তা মঞ্জুর করে। ওই মামলায় শেফালীকে গাছের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতনের হুকুমদাতা হিসাবে প্রধান আসামী র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার হয়।

মামলায় খালিশা চাঁপানী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক তামজিদার রহমান ও  ইউনিয়ন শ্রমিক লীগের সাধারন সম্পাদক শিমুল ইসলাম সংযুক্ত হয়েছে। 

এম/এসএম

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

সম্পাদক : সুকৃতি কুমার মন্ডল 

 খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

+8801711-98 15 52

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2019 Eibela.Com
Developed by: coder71