বুধবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮
বুধবার, ১১ই আশ্বিন ১৪২৫
 
 
ঢাবিতে ফের আন্দোলনে শিক্ষার্থীরা
প্রকাশ: ০৩:৪৯ pm ০৯-০৪-২০১৮ হালনাগাদ: ০৩:৪৯ pm ০৯-০৪-২০১৮
 
এইবেলা ডেস্ক
 
 
 
 


কোটা সংস্কার নিয়ে চলমান আন্দোলন থমথমে থাকার পর সোমবার দুপুরের দিকে ফের গতি পেয়েছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন এলাকায় জড়ো হয়ে শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ করছেন। 

সোমবার বেলা ১২টার দিকে আন্দোলনকারী ক্যাম্পাস থেকে শাহবাগের দিকে যাওয়ার চেষ্টা করলে পুলিশ তাদের বাধা দেয় এবং টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে। পরে আন্দোলনকারীরা ক্যাম্পাসের ভেতরে মিছিল করেন। এছাড়া রাজু ভাস্কর্যের সামনে জড়ো হয়ে বিক্ষোভ করছেন আন্দোলনকারীরা।

এছাড়া দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে টিএসসিতে জড়ো হতে শুরু করেন আন্দোলনকারীরা। দুপুর পৌনে ২টার দিকে টিএসসির সামনে থেকে পুলিশ তাদের সরিয়ে দেয়ার চেষ্টা করে। পুলিশের টিয়ার শেলের জবাবে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা এ সময় পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট পাটকেল মারতে শুরু করে। 

এদিকে কোটা সংস্কার নিয়ে চলমান আন্দোলনে আটক শিক্ষার্থীদের মুক্তি না দিলে সারা দেশে দাবানল ছড়িয়ে পড়বে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন আন্দোলনকারী সংগঠনের নেতারা। 

সোমবার সকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় লাইব্রেরির সামনে আন্দোলনকারীদের সংগঠন বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের নেতারা এ কথা বলেন।

নেতারা বলেন, আজ সোমবার দুপুরের মধ্যে আটক সব আন্দোলনকারীকে মুক্তি দেওয়া না হলে সারা দেশে দাবানল ছড়িয়ে পড়বে। শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি সাধারণ মানুষও এই আন্দোলনে যুক্ত হবেন।

সংগঠনের যুগ্ম আহ্বায়ক মো. রাশেদ খান বলেন, আমরা কারও বিরুদ্ধে আন্দোলন করছি না। অধিকারের প্রশ্নে এ আন্দোলন। তাই আটককৃতদের আজ দুপুরের মধ্যেই ছেড়ে দেওয়ার অনুরোধ করছি।

এছাড়া আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপর পুলিশের হামলার প্রতিবাদে সোমবার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের বিপরীতে মানববন্ধন করছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূগোল ও পরিবেশ বিভাগসহ কয়েকটি বিভাগের শিক্ষার্থীরা।

'বঙ্গবন্ধুর বাংলায় বৈষম্যের ঠাঁই নাই' স্লোগানে রোববার দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পদযাত্রা করে শাহবাগে অবস্থান নেন আন্দোলনকারীরা। দেশের সব জেলা ও বিশ্ববিদ্যালয়ে 'বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের' ব্যানারে পূর্বঘোষিত পদযাত্রা কর্মসূচি পালিত হয়।

রাত ৯টার দিকে শিক্ষার্থীরা সংঘবদ্ধ হয়ে টিএসসি ও চারুকলার সামনে অবস্থান নেন। পুলিশের সঙ্গে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া চলে কয়েক দফা। সংঘর্ষে আহত অন্তত ৩৫ জনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। ১১ পুলিশসহ আরও কয়েক শিক্ষার্থী বিএসএমএমইউ এবং বারডেমে চিকিৎসা নিয়েছে। আন্দোলনে থেমে থেমে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া চলে রবিবার গভীর রাত পর্যন্ত। 

নি এম/

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71