রবিবার, ২২ জুলাই ২০১৮
রবিবার, ৭ই শ্রাবণ ১৪২৫
 
 
তাবলিগ জামাত কর্মীদের অবরোধে ভোগান্তি 
প্রকাশ: ০৯:১৮ am ১১-০১-২০১৮ হালনাগাদ: ০৯:২৯ am ১১-০১-২০১৮
 
এইবেলা ডেস্ক
 
 
 
 


ঢাকার শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর এলাকায় তাবলিগ জামাত কর্মীরা অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করায় দিনভর উত্তরা ও টঙ্গী এলাকায় চলাচলকারীদের যানজটের ভোগান্তি পোহাতে হয়েছে।

ঢাকা-গাজীপুর ও ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে চলাচলকারী সব বাস সকাল থেকে ঘণ্টার পর ঘণ্টা একই জায়গায় দাঁড়িয়ে থাকায় যাত্রীদের অনেককে বাস থেকে নেমে পায়ে হেঁটে গন্তব্যের উদ্দেশে রওনা হতে দেখা যায়।

দুই গ্রুপে বিভক্ত তাবলিগ জামাতের একটি অংশ জামাতের কেন্দ্রীয় এক শুরা সদস্যের বাংলাদেশে আসার প্রতিবাদে সকাল ৯টার দিকে বিমানবন্দর এলাকায় বিক্ষোভ শুরু করলে যানজট শুরু হয় বলে জানান বিমানবন্দর থানার ওসি নূর এ আজম।

তাদের তৎপরতায় বিমানবন্দর গোল চত্বর থেকে হাতে গোনা কিছু যানবাহন বনানীর দিকে আসতে পারলেও বিমানবন্দর থেকে টঙ্গী বাজার ছাড়িয়ে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় পর্যন্ত রাস্তায় যানবাহন স্থবির হয়ে থাকে। বিকাল ৪টার দিকে আসরের নামাজ পর্যন্ত তাবলিগ কর্মীদের বিক্ষোভে ঢাকার গুরুত্বপূর্ণ এই সড়কে যান চলাচল বন্ধ থাকে।

দিনব্যাপী এই যানজটের কারণে বেশি ভোগান্তিতে পড়েন উত্তরার অধিবাসীরা। এই আবাসিক এলাকার প্রতিটি সেক্টরের প্রত্যেক রাস্তায় যানজটের প্রভাব পড়ে।

উত্তরার কেউ কেউ গাড়ি নিয়ে বাইরে বের হয়ে বাসার সামনেই যানজটে ঘণ্টাব্যাপী স্থবির হয়ে থেকে শেষ পর্যন্ত বাসায় ফিরতে বাধ্য হন।

উত্তরা ৫ নম্বর সেক্টরের বাসিন্দা অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক লায়লা আজিজ বলেন, “আমার এক নিকট আত্মীয়কে ডাক্তার দেখানোর জন্য দুপুর ১২টায় অ্যাপয়েন্টমেন্ট ছিল। জ্যামের কারণে মিস হল।”

 একই এলাকার ফারজানা চৌধুরী জানান, বুধবার উত্তরার শপিং কমপ্লেক্সগুলোয় সাপ্তাহিক ছুটি থাকার কারণে রাস্তাঘাটে মানুষ কম থাকে। তাই সাপ্তাহিক কাঁচাবাজারের কাজ তিনি বুধবারই সারেন।
“কিন্তু আজকে যে পরিস্থিতি… আমাকে দুই হাতে দুই বাজারের ব্যাগ নিয়ে আড়াই কিলোমিটার পথ হেঁটে বাসায় ফিরতে হয়েছে।”

উত্তরা ৮ নম্বর সেক্টরে বসবাস করেন একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা ফজলুর রহমান।

বেলা আড়াইটার দিকে তিনি বলেন, “গত দুই ঘণ্টা ধরে রাজলক্ষ্মীর উল্টোদিকের সড়কে যানজটে আটকে আছি।”

একই অভিজ্ঞতা হয় উত্তরা ৫ নম্বরের নায়লা চৌধুরীরও। একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক নায়লা দুপুর পৌনে ১২টার দিকে বনানীতে তার অফিসের উদ্দেশে রওনা হন। কিন্তু যানজটের কারণে ৩ নম্বর সেক্টরের ১৭ নম্বর রোডে নিজের গাড়িতে প্রায় ঘণ্টাখানেক বসে থাকার পর বাসায় ফিরতে বাধ্য হন তিনি।

অস্ট্রেলিয়া থেকে দেশে বেড়াতে এসে উত্তরা ১৪ নম্বর সেক্টরের বোনের বাসায় থাকছেন শায়লা মোনায়েম। মেয়েকে নিয়ে বের হয়েছিলেন গুলশানে যাওয়ার উদ্দেশ্যে, কিন্তু বাসার গেইটের সামনেই ৪০ মিনিট গাড়িতে বসে থাকতে হয় তাদের। পরে বিকল্প পথে আশুলিয়া দিয়ে বেড়িবাঁধ হয়ে মিরপুর ও শ্যামলী পার হয়ে গুলশান পৌঁছান তারা।

ভারতীয় উপমহাদেশের সুন্নি মতাবলম্বী মুসলমানদের বৃহত্তম ধর্মীয় সংঘ তাবলিগ জামাতের মূল কেন্দ্র বা মারকাজ দিল্লিতে। কেন্দ্রীয় ওই পর্ষদকে বলা হয় নেজামউদ্দিন, যার ১৩ জন শুরা সদস্যের মাধ্যমেই উপমহাদেশে তাবলিগ জামাত পরিচালিত হয়।

এই পর্ষদের সদস্য মাওলানা মোহাম্মদ সাদ কান্ধলভি সম্প্রতি নিজেকে তাবলিগের আমির দাবি করে বসেন। ফলে তার বাংলাদেশে আসা নিয়ে বাংলাদেশে তাবলিগের মূল দায়িত্বশীল ব্যক্তিদের মধ্যে মতবিরোধ দেখা দেয়।

ইজতেমায় অংশ নিতে বুধবার তার ঢাকা আসার খবরে সকাল থেকেই বিমানবন্দরের বাইরে বিক্ষোভ শুরু হয়। এরমধ্যেই বেলা সাড়ে ১২টার দিকে মাওলানা মোহাম্মদ সাদ কান্ধলভি ঢাকায় পৌঁছান। পরে সেখান থেকে বেরিয়ে বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে ঢাকায় তাবলিগের কার্যক্রমের মূল কেন্দ্র কাকরাইল মসজিদে যান তিনি।

আসরের পর বিমানবন্দর সড়কে বিক্ষোভ শেষে মাওলানা সাদের বিরোধী একদল তাবলিগকর্মী কাকরাইল মসজিদের সামনে জড়ো হলে সেখান থেকে তাদের সরিয়ে দেয় পুলিশ। পরে ওই মসজিদ ঘিরে পুলিশের পাহারা বসানো হয়েছে। সেখানে আর কাউকে ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না।

প্রচ

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71