শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮
শনিবার, ৭ই আশ্বিন ১৪২৫
 
 
ধর্ষণের পর তরুণীর চুল কেটে দিল চার দুর্বৃত্ত
প্রকাশ: ১১:২৩ am ১৯-১১-২০১৭ হালনাগাদ: ১১:২৩ am ১৯-১১-২০১৭
 
লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি
 
 
 
 


বারবার যৌতুকের দাবি এবং শারীরিক নির্যাতনের কারণে বাধ্য হয়ে ছয় মাস আগে স্বামীকে তালাক দেন এক তরুণী (২৪)। ক্ষিপ্ত হয়ে সাবেক স্বামী ওই তরুণীকে দেখে নেওয়ার হুমকি দেন। গত শুক্রবার সন্ধ্যায় ওই তরুণী অটোরিকশায় করে তার ভাইয়ের বাড়িতে যাচ্ছিলেন। পথে জোর করে অটোরিকশা থামিয়ে তাকে তুলে নিয়ে যান সাবেক স্বামী। রাতে একটি পরিত্যক্ত ঘরে আটকে রেখে ওই তরুণীকে ধর্ষণ করেন তার সাবেক স্বামীসহ চারজন। এরপর মারধর করে তার চুল কেটে দেওয়া হয়। অন্য তিনজন তার সাবেক স্বামীর বন্ধু।

নৃশংস এই ঘটনা ঘটেছে লক্ষ্মীপুরের কমলনগর উপজেলায়। গণধর্ষণের শিকার ওই তরুণীকে শনিবার বিকেলে লক্ষ্মীপুর শহরের একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

কমলনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আকুল চন্দ্র বিশ্বাস বলেন, তরুণীকে ধর্ষণের ওই ঘটনায় মৌখিক অভিযোগ পেয়েছেন তারা। এ ঘটনায় মামলা হবে। ধর্ষণের ঘটনায় জড়িত চার যুবককে গ্রেপ্তারের চেষ্টা করছেন তারা।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ওই তরুণী বলেন, ১০ বছর আগে তার বিয়ে হয়। ৮ বছরের একটি মেয়ে ও ৬ বছরের একটি ছেলে রয়েছে তার। বিয়ের পর থেকে বিভিন্ন সময় তাকে মারধর করে ও চাপ সৃষ্টি করে তার বাবার কাছ থেকে যৌতুক আদায় করতেন সাবেক স্বামী। সর্বশেষ তার বাবার কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকা এনে দিতে চাপ দেওয়া হয়। এ নিয়ে নির্যাতন সইতে না পেরে ছয় মাস আগে তিনি স্বামীকে তালাক দেন। এতে তার ওপর ক্ষুব্ধ হন সাবেক স্বামী।

ওই তরুণী বলেন, গত শুক্রবার সন্ধ্যায় অটোরিকশায় করে তিনি ভাইয়ের বাড়িতে যাচ্ছিলেন। কমলনগর উপজেলার তোরাবগঞ্জ বাজারে পৌঁছানোর পর তার সাবেক স্বামী ও তার কয়েকজন বন্ধু অটোরিকশাটি থামিয়ে জোর করে তাকে অপহরণ করেন। পরে বাজারের কাছে একটি পরিত্যক্ত ঘরে আটকে রেখে তাকে ধর্ষণের পর চুল কেটে দেয় ওই দুর্বৃত্তরা (সাবেক স্বামীসহ চারজন)। ভোরের দিকে বাড়ির এক নারী বিষয়টি টের পেলে ওই চারজন পালিয়ে যান। পরে তিনি সকালে সেখান থেকে বাবার বাড়িতে গিয়ে ঘটনাটি জানান।

হাসপাতালের চিকিৎসক আনোয়ার হোসেন বলেন, বিকেল চারটার দিকে ওই তরুণীকে হাসপাতালে নিয়ে আসেন স্বজনেরা। তার শরীরে আঘাত রয়েছে। মাথার চুল এলোমেলোভাবে কাটা। ধর্ষণের ঘটনায় পরীক্ষা করা হচ্ছে।

বিএম/

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71