সোমবার, ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯
সোমবার, ৬ই ফাল্গুন ১৪২৫
 
 
নকলের দায়ে সাত পরীক্ষার্থীর কারাদন্ড
প্রকাশ: ০৫:২৭ pm ১৭-১১-২০১৭ হালনাগাদ: ০৫:২৭ pm ১৭-১১-২০১৭
 
 
 


অনার্স প্রথম বর্ষের ‘এ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় ডিভাইস ব্যবহার করে নকলের দায়ে গোপালগঞ্জ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাত পরীক্ষার্থীকে ২০ দিন করে কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

শুক্রবার দুপুরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আব্দুল্লাহ আল মামুন এই সাজা প্রদান করেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. মাহবুবুল আলম স্বাক্ষরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

সাজাপ্রাপ্ত পরীক্ষার্থীরা হলেন- বরিশালের উজিরপুর উপজেলার আবদুল কুদ্দুসের ছেলে তানভীর, মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলার শহিদুল হকের ছেলে পলাশ মাতুব্বর, একই জেলার একই উপজেলার শান্তর ছেলে সৌরভ, যশোরের বাঘারপাড়া উপজেলার আমুরিয়া গ্রামের শামসুল হকের ছেলে জয় ইমামুল, ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলার মো. শাহজাহানের ছেলে ইকবাল, ঢাকার কেরানীগঞ্জের আব্দুল মালেকের ছেলে মো. কাওসার ও কুড়িগ্রামের কাঠালবাড়ী গ্রামের আইয়ুব আলীর ছেলে উৎস।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে, অনার্স প্রথম বর্ষের ‘এ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা শুক্রবার ১০টায় অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় ওই সাত ৭ পরীক্ষার্থী ইলেক্ট্রনিক্স ডিভাইস ব্যবহার করে নকল করছিল। পরে তাদের দেহ তল্লাশি করে ডিভাইস উদ্ধার করা হয়। এ সময় তাদের আটক করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

পরে আটককৃতদের ভ্রাম্যমাণ আদালতে সোপর্দ করা হলে আদালতের বিচারক সাক্ষ্য প্রমাণের ভিত্তিতে প্রত্যেককে ২০ দিন করে কারাদণ্ড প্রদান করে জেল হাজতে প্রেরণের নির্দেশ দেন।

এর আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. খোন্দকার নাসিরউদ্দিন বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসসহ গোপালগঞ্জ শহরের পাঁচটি পরীক্ষা কেন্দ্র পরিদর্শন করেন। ভর্তি পরীক্ষা সুষ্ঠু পরিবেশে সম্পন্ন হওয়ায় তিনি সংশ্লিষ্ট সকলকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান।

এসএম

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

সম্পাদক : সুকৃতি কুমার মন্ডল 

 খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

+8801711-98 15 52

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2019 Eibela.Com
Developed by: coder71