শনিবার, ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯
শনিবার, ৪ঠা ফাল্গুন ১৪২৫
 
 
নাইক্ষ্যংছড়িতে ২০ বছর বয়সি কিশোরের উচ্চতা আট ফুট
প্রকাশ: ০৩:৫২ pm ১০-১০-২০১৭ হালনাগাদ: ০৩:৫৩ pm ১০-১০-২০১৭
 
এইবেলা ডেস্ক
 
 
 
 


জিনাত আলী, বয়স ২০ বছর। অন্যদের চেয়ে সে একটু আলাদা। তার বয়সের একজন তরুণের উচ্চতা কত হতে পারে? পাঁচ ফুট, অথবা কিছুটা বেশি। অথচ জিনাতের উচ্চতা আট ফুট ছাড়িয়ে গেছে। দিন দিন বেড়েই চলছে তার উচ্চতা। শুধু তা-ই নয়, তার ডান পা-টি বাম পায়ের চেয়ে দুই ইঞ্চি লম্বা।
তার শরীরের এই অস্বাভাবিক বৃদ্ধি সবাইকে হতবাক করে দিয়েছে। চিকিৎসকেরা বলছেন, ব্রেন টিউমারের কারণে শরীরের হরমোন পরিবর্তন হয়ে এমনটি হয়েছে। এর চিকিৎসা অত্যন্ত ব্যয়বহুল।

জিনাত আলী বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার পাশের গর্জনিয়া এলাকার বর্গাচাষি আমির হামজার ছেলে। ছেলের এই অবস্থার ব্যাপারে বাবা আমির হামজা জানান, জিনাত আলীর বয়স যখন ১০ বছর তখন থেকে এই রোগ ধরা পড়ে। এর পর থেকে শুধু লম্বা হচ্ছে তার শরীর। সেই সাথে ক্ষুধা বাড়তে থাকায় প্রচুর খাদ্য গ্রহণ করতে হচ্ছে জিনাত আলীকে। ছেলের ব্যয়ভার বহন করতে হিমশিম খাচ্ছেন তিনি।

জিনাত আলীর মা সাফুরা বেগম জানান, ছেলের শরীরের অস্বাভাবিক পরিবর্তনের কারণে একবার চকরিয়ার মালুমঘাট হাসপাতালে নেয়া হয়েছিল। সেখানে চিকিৎসকেরা জানান, তার ব্রেন টিউমার হয়েছে। এ কারণে হরমন পরিবর্তন হয়ে উচ্চতা বাড়ার সাথে সাথে শরীরে নানা পরিবর্তন হচ্ছে। এক আমেরিকা প্রবাসীর মাধ্যমে জিনাত আলীকে ঢাকায় নেয়া হলেও সেখানে চিকিৎসকেরা অপারেশন করতে ১২ লাখ টাকা লাগবে বলে জানান। পরে জিনাত আলীকে বাড়ি নিয়ে আসা হয়।

পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন, অতিরিক্ত উচ্চতার কারণে জিনাত আলী বাড়ি থেকে খুব একটা বের হয় না। বের হলেই তার দিকে সবাই চেয়ে থাকে। ২০ বছর বয়সেই তার এখন উচ্চতা প্রায় আট ফুট। উচ্চতা বাড়ছেই। এর ফলে দুই পায়ের মধ্যে সমস্যা দেখা দিয়েছে। হাঁটতে গিয়েও সমস্যায় পড়তে হচ্ছে।
এ দিকে ছেলের চিকিৎসাব্যয় ও অতিরিক্ত খাদ্যগ্রহণ নিয়ে চিন্তায় আছেন তার মা-বাবা। খরচ চালাতে গিয়ে হিমশিম খাচ্ছেন তারা।

আমির হামজা জানান, যে প্রবাসী তার ছেলেকে চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নিয়ে গিয়েছিলেন তার ঠিকানাও এখন হারিয়ে গেছে। কিন্তু চিকিৎসার রিপোর্ট ও অন্যান্য কাগজপত্রও তার কাছে রয়ে গেছে। এখন ছেলের চিকিৎসাও করানো যাচ্ছে না।

প্রসঙ্গত, বর্তমানে পৃথিবীর সবচেয়ে লম্বা মানুষটি হলেন সুলতান কোসেন। তার উচ্চতা ২৫১ সেন্টিমিটার অর্থাৎ ৮ ফুট ২.৮ ইঞ্চি। ২০১১ সালে গিনেস বুকে সবচেয়ে লম্বা মানুষের খেতাব পান তিনি। সুলতানে কোসেন তুরস্কের বাসিন্দা। হরমোনের সমস্যার কারণে ছোটবেলা থেকে অস্বাভাবিকভাবে উচ্চতা বাড়তে থাকে তার।
সবচেয়ে লম্বা মানুষের পাশাপাশি তিনি আরো দুটি রেকর্ডের মালিক তিনি। সেগুলো হলো, জীবিত মানুষের মধ্যে সবচেয়ে বড় হাত ও সবচেয়ে বড় পা সুলতানের বাম পায়ের দৈর্ঘ্য ৩৬.৫ সেন্টিমিটার এবং ডান পায়ের দৈর্ঘ্য ৩৫.৫ সেন্টিমিটার। আর হাতের দৈর্ঘ্য ২৮.৫ সেন্টিমিটার।

নি এম/

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

সম্পাদক : সুকৃতি কুমার মন্ডল 

 খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

+8801711-98 15 52

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2019 Eibela.Com
Developed by: coder71