মঙ্গলবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৮
মঙ্গলবার, ২৭শে অগ্রহায়ণ ১৪২৫
 
 
নাম বদলের পর এবার অযোধ্যায় নিষিদ্ধ মদ ও মাংস
প্রকাশ: ১০:৪২ am ১৩-১১-২০১৮ হালনাগাদ: ১০:৪২ am ১৩-১১-২০১৮
 
এইবেলা ডেস্ক
 
 
 
 


ফৈজাবাদের নাম বদলে করে অযোধ্যা করা হয়েছে। ভগবান রামচন্দ্রের জন্মভূমি অযোধ্যা জেলায় মদ ও মাংস নিষিদ্ধ করতে চলেছে উত্তরপ্রদেশের যোগী সরকার৷ শুধু অযোধ্যা নয়, শ্রীকৃষ্ণের জন্মস্থান মথুরা ও উত্তরপ্রদেশের অন্যান্য তীর্থেও মাংস ও মদ নিষিদ্ধ করে দেওয়া হতে পারে।

রবিবার রাজ্য সরকারের মুখপাত্র শ্রীকান্ত শর্মা জানিয়েছেন, নাম বদলের পর গোটা জেলায় মদ ও মাংসে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হচ্ছে তাঁদের মূল লক্ষ্য।

শ্রীকান্ত শর্মা জানিয়েছেন, আইনি পথেই অযোধ্যায় মদ ও মাংস বিক্রির উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করবে যোগী সরকার। ইতোমধ্যে অযোধ্যা পুরবোর্ডের অধীনে যে সব অঞ্চল রয়েছে, সর্বত্র মদ ও মাংস বিক্রিতে নিষেধাজ্ঞা জারি হয়ে গিয়েছে। দাবি উঠেছে গোটা জেলাতেই তা নিষিদ্ধ করার।

স্থানীয় হিন্দু সন্ন্যাসীরা সরকারের কাছে এই দাবি জানিয়েছে। আচার্য সত্যেন্দ্র দাসের মতে, অযোধ্যা শতাব্দী প্রাচীন পবিত্র শহর। এমন এক জায়গায় মদ ও মাংস বিক্রি করা উচিৎ নয়। মদ ও মাংস বিক্রি নিষিদ্ধ হলে মানুষের জীবনযাত্রায় পরিবর্তন হবে।  তাঁরা সুস্থভাবে জীবনযাপন করতে পারবে। শহরের পবিত্রতা বজায় থাকবে। গোটা রাজ্যেই নিষেধাজ্ঞা জারি করা উচিৎ বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

গত ৬ নভেম্বর ফৈজাবাদ জেলার নাম বদলে হয় অযোধ্যা। তার পরে অযোধ্যার অস্থায়ী রামমন্দিরের প্রধান পুরোহিত সত্যেন্দ্র দাস এবং অন্যান্য সাধুসন্ত দাবি করেন, যে জেলার সঙ্গে প্রভু রামের নাম জড়িয়ে আছে, তা শোধন করার জন্য সরকার এখানে মাংস ও মদ পুরোপুরি নিষিদ্ধ করে দিক ।

তাঁদের যুক্তি, এখনও পর্যন্ত এই নিষেধাজ্ঞা শুধুমাত্র অযোধ্যা শহরে সীমাবদ্ধ রয়েছে। কিন্তু এখন যেহেতু পুরো জেলারই নাম হয়েছে অযোধ্যা, তাই পুরো জেলাতেই নিষেধাজ্ঞা চালু করা উচিত ।

রাজ্য সরকারের এই পদক্ষেপকে স্বাগত জানিয়ে অযোধ্যার বিশ্ব হিন্দু পরিষদের মুখপাত্র শরদ শর্মা 

নি এম/

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71