শুক্রবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৮
শুক্রবার, ২রা অগ্রহায়ণ ১৪২৫
 
 
নারী শ্রমিককে হত্যার পর মরদেহ ঝুলিয়ে রাখার অভিযোগ
প্রকাশ: ০২:৪৮ pm ২৪-১০-২০১৭ হালনাগাদ: ০২:৪৮ pm ২৪-১০-২০১৭
 
ময়মনসিংহ প্রতিনিধিঃ
 
 
 
 


ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলা জামিরদিয়া মাস্টারবাড়ী এলাকায় বাদশা টেক্সটাইলের নারী শ্রমিক সোনিয়া আক্তারকে (১৪) হত্যার পর লাশ ঝুলিয়ে রাখার অভিযোগ পাওয়া গেছে। পুলিশ পাপিয়া নামে এক শ্রমিককে আটক করেছে।

এ ঘটনায় সোমবার দুপুরে নিহতের মা নুরুন্নাহার বাদী হয়ে ভালুকা থানায় দুজনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেছেন। নিহত সোনিয়া নোয়াখালীর কোম্পানিগঞ্জ উপজেলার চরহাজারি গ্রামের বাহারউল্লাহর মেয়ে। সোনিয়া ভালুকার জামির দিয়া মাস্টারবাড়ি এলাকার আকবর আলীর বাড়িতে ভাড়া থেকে স্থানীয় বাদশা ট্রেক্সটাইলে শ্রমিকের কাজ করতো। 

রবিবার সন্ধা থেকে সোনিয়াকে খুজে পাওয়া যাচ্ছিল না। পরে রাত ৯টার দিকে প্রতিবেশি আজিজুলের বাড়ীর বাড়াটিয়া গার্মেন্টস শ্রমিক সোনামগঞ্জ জেলার দোয়ারা উপজেলার ধর্মপুর গ্রামের হাশিম উদ্দিনের ছেলে রাজিবুল ইসলামের (২৬) রুম থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় সোনিয়াকে স্থানীয় উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন। 

নিহতের মা নুরুন্নাহার জানান, ঘটনার রাতে মেয়েকে খোঁজাখুজির এক পর্যায়ে রাজিবুলের রুমে গিয়ে সোনিয়াকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পাই। আমার ডাক চিৎকারে লোকজন এসে আহত অবস্থায় সোনিয়াকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে ডাক্তার তাকে মৃত বলে জানায়। 

এ সময় রাজিবুল পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় শেরপুরের নালিতাবাড়ি উপজেলার বাসিন্দা নিহত সোনিয়ার বান্ধবী পাপিয়াকে ঘাতক রাজিবুলকে সহযোগিতার অভিযোগে আটক করেছে ভালুকা থানা পুলিশ। 

ভালুকা মডেল থানা ওসি (তদন্ত) হযরত আলী জানান, এ ঘটনায় নিহতে মা নুরন্নাহার বাদী হয়ে মামলা দায়েরের পর একজনকে আটক করা হয়েছে। মূল হোতাকে গ্রেপ্তারে চেষ্টা করছে পুলিশ।

আর/আরডি/

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71