বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮
বুধবার, ৪ঠা আশ্বিন ১৪২৫
 
 
নাসিরনগরে আ.লীগ ও সুন্দরগঞ্জে জাপা জয়ী
প্রকাশ: ০২:৫৯ pm ১৪-০৩-২০১৮ হালনাগাদ: ০২:৫৯ pm ১৪-০৩-২০১৮
 
এইবেলা ডেস্ক
 
 
 
 


ব্রাহ্মণবাড়িয়া-১ (নাসিরনগর) ও গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ আসনের উপনির্বাচনে মঙ্গলবার কয়েকটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছাড়া শান্তিপূর্ণভাবেই ভোটগ্রহণ শেষ হয়েছে। মঙ্গলবার রাতে পাওয়া বেসরকারি ফলে নাসিরনগরে আওয়ামী লীগের প্রার্থী বিএম ফরহাদ হোসেন সংগ্রাম এবং সুন্দরগঞ্জে জাতীয় পার্টির প্রার্থী ব্যারিস্টার শামীম পাটোয়ারী বেসরকারিভাবে এমপি নির্বাচিত মঙ্গলবার সকাল ৮টা থেকে নাসিরনগর ও সুন্দরগঞ্জের সবগুলো কেন্দ্রে একযোগে বিরতিহীন ভোটগ্রহণ শুরু হয়, শেষ হয় বিকাল ৪টায়। পরে শুরু হয় ভোট গণনা।

উপনির্বাচনের কারণে অধিকাংশ কেন্দ্রেই ভোটারের উপস্থিতি ছিল তুলনামূলক কম। এর মধ্যেই জাল ভোট দেওয়ার অভিযোগে নাসিরনগরে চাপরতলা প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র থেকে শাওন ও আমির উদ্দিন নামে দুইজনকে আটক করে পুলিশ।

নাসিরনগরে আওয়ামী লীগ প্রার্থী বিএম ফরহাদ হোসেন সংগ্রাম নৌকা প্রতীকে ৮৩ হাজার ১৪ ভোট পেয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জাতীয় পার্টির (এরশাদ) রেজওয়ান আহমেদ লাঙ্গল প্রতীকে পেয়েছেন ৩৪ হাজার ৯০১ ভোট।

সুন্দরগঞ্জে জাতীয় পার্টির ব্যারিস্টার শামীম হায়দার পাটোয়ারী লাঙ্গল প্রতীকে প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ প্রার্থী আফরুজা বারীর চেয়ে ১০ হাজার ১৩ ভোটের ব্যবধানে বিজয়ী হয়েছেন। বেসরকারি ফলে ব্যারিস্টার শামীম হায়দার পাটোয়ারীর প্রাপ্ত ভোট ৭৮ হাজার ৯শ ২৬ ভোট। আর আফরুজা বারীর প্রাপ্ত ভোট ৬৮ হাজার ৯শ ১৩ ভোট।

নাসিরনগর আসনে জাতীয় পার্টির (জাপা) প্রার্থী রেজওয়ান আহমেদ বিকালে সংবাদ সম্মেলন করে সরকারি দলের সমর্থকদের বিরুদ্ধে ভোট কারচুপি ও অনিয়মের অভিযোগ এনে নির্বাচন প্রত্যাখ্যান করেছেন। একই সঙ্গে এ আসনে পুনর্নির্বাচনের দাবি জানান তিনি।

এ আসনের জাপা প্রার্থী রেজওয়ান আহমেদ অভিযোগ করেন, উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীকে বিজয়ী করতে পুলিশ নিজেরাই নৌকা প্রতীকে সিল মেরেছে। দুপুর ১টার দিকে উপজেলার নূরপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র পরিদর্শনে গিয়ে সাংবাদিকদের কাছে এ অভিযোগ জানান তিনি। এর আগে ওই কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার ও পুলিশ সদস্যদের সঙ্গে তার কথা কাটাকাটি হয়। রেজওয়ান বলেন, পুলিশ ও আওয়ামী লীগের ক্যাডাররা কেন্দ্র থেকে তার এজেন্টদের বের করে দিয়ে নৌকায় সিল মারছে। বিষয়টি ডিআইজি ও রিটার্নিং অফিসারকে জানিয়েছেন; কিন্তু কোনো কাজ হচ্ছে না। তিনি বলেন, চাতালপাড় ইউনিয়নের ১০টি কেন্দ্র ও গোয়ালনগর ইউনিয়নের ৪টি কে›ন্দ্র থেকে লাঙ্গল প্রতীকের এজেন্টদের বের করে দিয়ে পুলিশ নিজেরাই সিল মেরেছে নৌকায়। লাঙ্গলের বিজয় নিশ্চিত জেনে তারা এ কুকর্ম করছে।

তবে জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. ইকবাল হোসেন বলেন, জাপা প্রার্থীর অভিযোগ সঠিক নয়। আমি নিজে বেশ কয়েকটি কেন্দ্র ঘুরেছি। এমন কিছু চোখে পড়েনি।

নি এম/

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71