শনিবার, ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯
শনিবার, ৪ঠা ফাল্গুন ১৪২৫
 
 
নিখোঁজের ৫দিন পর কিশোরের মস্তকবিহীন লাশ উদ্ধার
প্রকাশ: ০৪:০২ pm ০৩-০৬-২০১৮ হালনাগাদ: ০৪:০২ pm ০৩-০৬-২০১৮
 
হবিগঞ্জ প্রতিনিধি
 
 
 
 


হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জ উপজেলার পানিউমদা ইউনিয়নের দুর্গম পাহাড়ের ভিতর থেকে নিখোঁজের ৫দিন পর কাওছার মিয়া (১৪) নামে এক কিশোরের মস্তকবিহীন লাশ উদ্ধারের ঘটনায় নবীগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে।

আটককৃত  দুরুদ মিয়া(২৬) ও জগলু মিয়া(২৮) কে আসামী করে শনিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে মামলটি দায়ের করেন নিহত কাওছারের পিতা হায়দর আলী। রাতে এরপর আটককৃতদের হত্যা মামলায় গ্রেফতার দেখায় পুলিশ। 

রবিবার বিকেলে গ্রেফতারকৃতদের আদালতে তোলার কথা রয়েছে। পুলিশের পক্ষ থেকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রিমাণ্ডের আবেদন করা হবে বলেও সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

উল্লখ্য, গত (মে) শনিবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে নবীগঞ্জ উপজেলার পানিউমদা ইউনিয়নের চাতল গ্রামের নিকটবর্তী দুর্গম পাহাড়ের আব্দুল্লাহজাই নামকস্থান থেকে কাওছারের মস্তকবিহীন লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এঘটনার পর পরই চাতল গ্রামের কাছুম আলীর পুত্র দুরুদ মিয়া(২৬) ও সুফি মিয়ার পুত্র জগলু মিয়া(২৮) আটক করে পুলিশ। 

জানা যায়, গত বছর তিনেক পূর্বে একই গ্রামের আটককৃত দুরুদ মিয়ার বাবা কাছুম আলীর সঙ্গে কাওছারের পিতা হায়দর মিয়ার তুচ্ছ বিষয় নিয়ে ঝগড়ার সৃষ্টি হয়। পরে বিষয়টি স্থানীয় লোকজন সমাধান করে দেন।

গত(২৯মে) মঙ্গলবার সন্ধ্যার পর কাওছার তাদের বাড়ির নিকটে স্থানীয় একটি দোকানে যায়। সেখান থেকে রাত সাড়ে ১১টার দিকে একই এলাকার কাছুম আলীর ছেলে দুরুদ মিয়ার সঙ্গে বাড়ির ফেরার পথে নিখোঁজ হয় কাওছার।

দুইদিন চারিদিক খোঁজাখুঁজির পর কাওছারকে না পেয়ে গত (৩১) মে নবীগঞ্জ থানায় একটি জিডি করেন কাওছারের পিতা হায়দর আলী। হত শনিবার বিকেলে পানিউমদা ইউনিয়নের চাতল গ্রামের আব্দুল্লাহযাই এলাকায় গরু চড়ানোতে গেলে স্থানীয় রাখালরা পচা দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে দেখে এগিয়ে গেলে একটি মাথা বিহীন লাশ দেখতে পায়। এসময় স্থানীয় লোকজনকে খবর দিলে   কিশোরের লাশ এক নজর দেখার জন্য ভীর জমান স্থানীয় এলাকাবাসী।  কাওছারের শরিরে বিভিন্ন অংশে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে,  লুঙ্গী ও পায়ের জুতা দেখে কাওছারকে চিনতে পারেন তার স্বজনরা।

পরে খবর পেয়ে সহকারী পুলিশ সুপার নবীগঞ্জ বাহুবল সার্কেল পারভেজ আলম চৌধুরী, নবীগঞ্জ থানার ওসি এস এম আতাউর রহমান সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এবং লাশ উদ্ধার করেন।

কাওছারের পিতা হায়দর মিয়া কান্না জড়িত কন্ঠে বলেন, পূর্ব বিরোধের জের ধরেই আমার ছেলেকে তারা এইরকম হত্যা করেছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে নবীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ এস.এম আতাউর রহমান বলেন, একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে ,(আজ) রবিবার বিকেলে আসামীদের আদালতে তোলা হবে।

নি এম/ছনি চৌধুরী

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

সম্পাদক : সুকৃতি কুমার মন্ডল 

 খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

+8801711-98 15 52

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2019 Eibela.Com
Developed by: coder71