রবিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯
রবিবার, ১২ই ফাল্গুন ১৪২৫
সর্বশেষ
 
 
নিলয় হত্যার দুই বছর, রাষ্ট্র এবং প্রশাসনের কী খবর?
প্রকাশ: ০২:৩৬ pm ০৭-০৮-২০১৭ হালনাগাদ: ০২:৩৬ pm ০৭-০৮-২০১৭
 
 
 


গণজাগরণ মঞ্চের আন্দোলনে যুক্ত থাকা সাম্প্রদায়িকতা ও মৌলবাদের বিরুদ্ধে সোচ্চার ব্লগার নীলাদ্রি চট্টোপাধ্যায় নিলয়কে হত্যার দুই বছরেও বিচার না পেয়ে অনশনে করেছেন নিলয়ের বন্ধু সাজ্জাদ সাজু।

সোমবার সকাল ৯টায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে পোস্টার-ব্যানার নিয়ে দিনব্যাপী অনশনের লক্ষ্যে বসলেও পুলিশের বাধায় আড়াই ঘণ্টা পর বেলা ১১টার দিকে সেসব গুটিয়ে চলে চান তিনি।

নীলয় হত্যাকাণ্ডের বিচার দাবিতে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে অনশনে থাকার ইচ্ছে ছিল জানিয়ে সাজু অভিযোগ করেন, “সচিবালয়ে সোমবার কেবিনেট আছে জানিয়ে পুলিশ আমাকে এখানে বসতে দিচ্ছে না।”

দেশজুড়ে উগ্রবাদীরা একের পর পর টার্গেট কিলিং শুরুর পর ২০১৫ সালের ৭ অগাস্ট শুক্রবার ছুটির দিনের শান্ত দুপুরে জুমার নামাজ শেষ হওয়ার পরপরই পূর্ব গোড়ান টেম্পোস্ট্যান্ডের কাছে ৮ নম্বর রোডের ১৬৭ নম্বরের পাঁচতলা ভবনের পঞ্চমতলায় নিলয়কে কুপিয়ে হত্যা করা হয়।

সাম্প্রদায়িকতা ও মৌলবাদের বিরুদ্ধে সোচ্চার ২৭ বছর বয়সী এই ব্লগার ইস্টিশন ব্লগে লিখতেন নিলয় নীল নামে। খুন হওয়ার কিছুদিন আগে হুমকি পাওয়ার কারণে ফেইসবুক থেকে নিজের সব ছবি সরিয়ে ফেলার পাশাপাশি ঠিকানার জায়গায় বাংলাদেশের বদলে লিখেছিলেন ভারতের কলকাতার নাম।

নিলয়কে হত্যার দুই বছর পূর্ণ হওয়ার দিনে সকাল ৯টার দিকে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনের রেলিংয়ে বেশ বড়সড় একটি ব্যানার ও নিজের গলায় আরেকটি পোস্টার ঝুলিয়ে অনশনে বসতে দেখা যায় নিলয়ের বন্ধু সাজ্জাদ সাজুকে।

পোস্টার ও ব্যানারে লেখা ছিল, ‘নিলয় নীল হত্যাকাণ্ডের দুই বছর, রাষ্ট্র এবং প্রশাসনের কী খবর?

একাই এ অনশনের ডাক দিলেও সামনে তখনকার সময়ের সহযোদ্ধা ও সহকর্মীদের নিয়ে বড় করে অনশনের ডাক দেবেন বলে সকালে জানিয়েছিলেন সাজু।

তিনি বলেন, “নিলয়ের হত্যাকাণ্ডের বিচারের দাবিতে রাজপথে নেমেছি, সামনে সহযোদ্ধা ও সহকর্মীদের নিয়ে বড় করে অনশনের ডাক দেব।”

বন্ধুর হত্যাকাণ্ডের তদন্ত বা বিচারের ক্ষেত্রে কোনো উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি নেই বলে মনে করেন সাজ্জাদ সাজু।

তিনি বলেন, “শুধু সন্দেহভাজন ব্যক্তিদের গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। কিন্তু প্রকৃত অপরাধীদের গ্রেপ্তার করা হয়নি। এমন কি এই হত্যাকাণ্ডের কোনো ধরনের তদন্তের অগ্রগতিও আমরা দেখছি না।”

ব্লগারদের হত্যার বিচার চেয়ে যারা আন্দোলন করছেন, তারাও নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন বলে দাবি করেন সাজু।

কিন্তু নিলয়ের হত্যাকাণ্ডের বিচারের দাবিতে প্রতিবাদী অনশনে তিনি একাই কেন এমন প্রশ্নের জবাবে সাজু বলেন, “অনেকেই প্রতিবাদ করতে চায়। কিন্তু নিরাপত্তার অভাবে করতে পারে না।”

নিলয় নীল হত্যার বিচার সরকারের সদিচ্ছার ওপর নির্ভর করছে বলেও মন্তব্য করেন সাজু।

আরডি/

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

সম্পাদক : সুকৃতি কুমার মন্ডল 

 খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

+8801711-98 15 52

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2019 Eibela.Com
Developed by: coder71