বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০১৯
বৃহঃস্পতিবার, ৩রা শ্রাবণ ১৪২৬
 
 
নড়াইলে শিশু পাচার মামলায় একজনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড
প্রকাশ: ০২:১৩ pm ২৭-০৫-২০১৫ হালনাগাদ: ০২:১৩ pm ২৭-০৫-২০১৫
 
 
 


নড়াইল প্রতিনিধি : শিশু পাচার ও ধর্ষণের অভিযোগে রিপন শেখ (২৬) নামের একজনকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড ও ২০ হাজার টাকা জরিমানা প্রদান করেছে আদালত। 

মঙ্গলবার দুপুরে নড়াইলের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. আবুল বাশার মুন্সী বিচারক এ রায় দেন।

 সাজাপ্রাপ্ত আসামী রিপন শেখ পলাতক রয়েছে। সে জেলার লোহাগড়া উপজেলার রাজুপুর গ্রামের মৃত কুতুব উদ্দিন শেখের পুত্র। 

আদালত সূত্রে জানা গেছে, গত ২০১১ সালের ২৪ সেপ্টেম্বর বিকেল ৪টায় আসামী রিপন শেখ নড়াইল সদর উপজেলার ধুড়িয়া গ্রামের চালিতাতলা সম্মিলনী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে প্রতারণামূলকভাবে নিয়ে লোহাগড়া উপজেলার কচুবাড়িয়া গ্রামের কবীর ম্যারেজ রেজিষ্ট্রারের কাছে যায়। সেখানে নিয়ে একটি সবুজ ফরমে আসামী এবং ওই মেয়ের সহি নিয়ে কলেমা পাঠ করাইয়া তাদের বিয়ে হয়েছে বলে জানায়। 

পরে আসামী রিপন শেখ ঐ সময় কয়েকজন সঙ্গীসহ তাকে লোহাগড়া নিয়ে যায়। ঐদিন রাতেই ভারতে পাচারের উদ্দেশ্যে বেনাপোলে নিয়ে আটক করে রাখে এবং তাকে ধর্ষণ করে। এ সময় সে পাচার হয়ে যাচ্ছে এটা বুঝতে পারে। 

বিষয়টি বুঝতে পেরে ২০১১ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর রাতে কৌশলে পালিয়ে অন্য একটি বাড়িতে আশ্রয় নেয়। সেখান থেকে বাড়িতে এসে সে পিতা-মাতাকে বিষয়টি জানায়।

 এ ঘটনায় গত ২০১১ সালের ৫ অক্টোবর তার পিতা বাদী হয়ে রিপন শেখকে আসামী করে নড়াইলের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনালে মামলা করেন।

 এ ঘটনায় আদালত ৫জন সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে আসামী রিপন শেখের বিরুদ্ধে আনীত নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ সংশোধনী ২০০৩ এর ৬ (১)/৯ (১) ধারার অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় বিচারক আসামী মো. রিপন শেখকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড ও ২০ হাজার টাকা জরিমানার আদেশ দেয়।

এইবেল ডট কম/এইচ আর

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

সম্পাদক : সুকৃতি কুমার মন্ডল 

 খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

+8801711-98 15 52

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2019 Eibela.Com
Developed by: coder71