মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০১৯
মঙ্গলবার, ১লা শ্রাবণ ১৪২৬
 
 
নড়াইলে হিন্দু পরিবারকে বসতবাড়ি থেকে উচ্ছেদের চেষ্টা
প্রকাশ: ০৮:০১ pm ১০-০৭-২০১৮ হালনাগাদ: ০৮:০১ pm ১০-০৭-২০১৮
 
নড়াইল প্রতিনিধি:
 
 
 
 


নড়াইলে সংখ্যালঘু পরিবারকে বসতবাড়ি থেকে উচ্ছেদের চেষ্টা করছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। বসতবাড়ি থেকে চলাচলকারী প্রবেশ পথটি পাশ্ববর্তী প্রভাবশালী ছালাম ফকির বেদখল করে বৃষ্টির পানি বের করার নামে গর্ত খুঁড়ে বিঘ্ন সৃষ্টি করায় অসহায় সংখ্যালঘু পরিবারটি বাড়ি থেকে বের হতে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

তারা অনেকটা গৃহবন্দী অবস্থায় বসবাস করছেন। প্রতিকার পেতে নড়াইল পুলিশ সুপারের নিকট একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারটি। 

লিখিত অভিযোগে জানা যায়, নড়াইলের ধাড়িয়াঘাটা গ্রামের অসীম কুমার সাহার ধাড়িয়াঘাটা মৌজায় আর.এস চূড়ান্ত ১৬ নং খতিয়ানের ২৪১ নং দাগের ২৭ শতাংশ বাস্তু জমির ওপর পৈত্রিক বসতভিটা। সেখানে সপরিবারে অসীম কুমার সাহা পূর্বপুরুষদের আমল থেকে বসবাস করে আসছেন। কিন্তু পার্শ্ববর্তী বাসিন্দা মৃত. খাতের ফকিরের ছেলে প্রভাবশালী ছালাম ফকির সংখ্যালঘু হিন্দু অসীম কুমার ও তার পরিবারকে বসতবাড়ি থেকে উচ্ছেদ করতে প্রতিনিয়ত শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন এবং বিভিন্ন অত্যাচার করছেন। ২০১৪ সালের ২৬ অক্টোবর অসীম কুমার সাহাকে ছালাম ফকির ও তার লোকজন বাড়ি থেকে ধরে নিয়ে বেধড়ক মারপিট করে বাম হাত ভেঙ্গে দেয়। এরপর তার স্ত্রী ও দুই কন্যা সন্তানকে বাড়ি থেকে বের করে তালা লাগিয়ে দেয়।

এর আগে ২০০৯ সালের ৪ সেপ্টেম্বর সংখ্যালঘু অসীম সাহার বসতবাড়ির সীমানার গাছ-পালা জোরপূর্বক কেটে নিয়ে যায়। এছাড়া অব্যাহতভাবে ঘরের চালে ঢিল মারাসহ নানা প্রকার জুলুম ও অত্যাচারের শিকার হচ্ছেন। এরই ধারাবাহিকতায় অতিসম্প্রতি ছালাম ফকির অসীম কুমারের বসতবাড়ির প্রবেশ পথে তারই উত্তরাধিকার সূত্রে পাওয়া সম্পতির জায়গা বেদখল করে বৃষ্টির পানি বের করার নামে গর্ত খুঁড়ে রাখায় তাদের বসতবাড়িতে চলাচলে বিঘ্ন সৃষ্টি হচ্ছে। তিনি একজন কাঁচামাল ব্যবসায়ী হওয়ায় হাট-বাজারে যাওয়ার সময় অসীমের বাড়ী থেকে ভ্যানযোগে পন্য পরিবহন করতে পারছেন না বলে অভিযোগ করেছেন ওই অসহায় পরিবারটি। 

ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারটি স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের কাছে নালিশ করেও কোনো প্রকার সমাধান পায়নি। বিধায় এ বিষয়ে প্রতিকার চেয়ে রবিবার (৮ জুলাই) পুলিশ সুপারের দ্বারস্থ হন। 

এদিকে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, অসীমের বসতবাড়ি থেকে সরকারি রাস্তা পর্যন্ত প্রবেশ পথের মুখে উদ্দেশ্যমূলকভাবে গর্ত করে রেখে দিয়েছেন। এতে তাদের স্বাভাবিক চলাচলে বিঘ্ন সৃষ্টি হচ্ছে। 

লিখিত অভিযোগকারী সন্ধ্যা রানী সাহা জানান, আমাদের বাড়ির যাতায়াতের রাস্তাটি জোরপূর্বকভাবে গর্ত খুঁড়ে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। স্থানীয়ভাবে বিষয়টি মীমাংসিত না হওয়ায় আমরা প্রশাসনের দ্বারস্থ হয়েছি।

এ বিষয়ে ছালাম ফকিরের সঙ্গে যোগাযোগ করে অভিযোগ সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি অভিযোগটি অস্বীকার করেন। 

এ প্রসঙ্গে থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শেখ শমসের আলী জানান, এ বিষয়ে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে একজন উপ-পরিদর্শককে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।


ইউআর/বিডি

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

সম্পাদক : সুকৃতি কুমার মন্ডল 

 খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

+8801711-98 15 52

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2019 Eibela.Com
Developed by: coder71