বৃহস্পতিবার, ২৭ জুন ২০১৯
বৃহঃস্পতিবার, ১৩ই আষাঢ় ১৪২৬
 
 
পাকিস্তানের প্রথম হিন্দু নারী বিচারক সুমন কুমারী
প্রকাশ: ০২:৫২ pm ৩০-০১-২০১৯ হালনাগাদ: ০২:৫২ pm ৩০-০১-২০১৯
 
এইবেলা ডেস্ক
 
 
 
 


মুসলিম প্রধান রাষ্ট্র পাকিস্তানে প্রথম হিন্দু নারী বিচারক হতে যাচ্ছেন সুমন কুমারী। দেওয়ানি আদালতের জজ হিসেবে তিনি নিয়োগ পাবেন। সিন্ধু প্রদেশের কামবার-শাহদাদকত অঞ্চল থেকে আসা এই নারী তাঁর নিজ জেলাতেই দায়িত্ব পালন করবেন।

সুমন কুমারী হায়দরাবাদ থেকে এলএলবি পাস করেন। করাচির সেবিস্ত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে একই বিষয়ে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন।

পিটিআইকে সুমন কুমারী বলেন, ‘আমার এ পেশায় আসার কারণ, আমি জানি, সিন্ধু প্রদেশের অনগ্রসর এলাকার গরিব লোকজনের আইনি বিষয়ে কতটা পরামর্শ দরকার। এখানে আসার পেছনে আমার বাবা ও পরিবারের অবদান অনেক বেশি। কারণ, আমাদের সম্প্রদায় থেকে এ পেশায় একজন নারীর আসাটা খুব সহজ নয়।’

সুমনের বাবা ড. পবন কুমার বোদানও চান, তাঁর মেয়ে গরিব লোকজনকে, বিশেষ করে হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজনকে বিনা পয়সায় আইনি পরামর্শ দিক। 

সুমনের বাবা পবন কুমার বদান একজন চোখের চিকিৎসক। তাঁর তিন মেয়ের মধ্যে দু'জন ইঞ্জিনিয়ার ও চার্টার্ড অ্যাকাউন্টেন্ট। 

পাকিস্তানের মোট জনসংখ্যার ২ শতাংশ হিন্দু। তবে পাকিস্তানে কোনো হিন্দু ব্যক্তির বিচারক হিসেবে নিয়োগ পাওয়ার ঘটনা এটাই প্রথম নয়। হিন্দু সম্প্রদায় থেকে আসা দেশটির প্রথম বিচারক হলেন রানা ভাগবানদাস। তিনি ২০০৫ ও ২০০৭ সালের মধ্যবর্তী সময় ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। গত বছর মহেশ কুমার মালানি নামের এক নারী সাধারণ পরিষদ নির্বাচনে জয়ী হন। তিনি প্রথম হিন্দু ব্যক্তি, যিনি নির্বাচিত হয়েছেন।

নি এম/

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

সম্পাদক : সুকৃতি কুমার মন্ডল 

 খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

+8801711-98 15 52

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2019 Eibela.Com
Developed by: coder71