শুক্রবার, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯
শুক্রবার, ১০ই ফাল্গুন ১৪২৫
 
 
পুরীর সমুদ্রসৈকতে বালুর সান্তা ক্লজ
প্রকাশ: ০১:১২ pm ২৬-১২-২০১৭ হালনাগাদ: ০১:১২ pm ২৬-১২-২০১৭
 
এইবেলা ডেস্ক
 
 
 
 


ভারতের ওডিশা রাজ্যে পুরীর সমুদ্রসৈকতে বালুর সান্তা ক্লজ তৈরি করে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন বিখ্যাত বালু-ভাস্কর পদ্মশ্রী সুদর্শন পট্টনায়েক।

বালুর ভাস্কর্য সান্তা ক্লজ ও যিশুর জন্মবৃত্তান্ত দেখতে পুরীর সৈকতে সোমবার সকাল থেকে উপচে পড়া ভিড়।

যেকোনো উৎসবে বালুর শিল্প ভাস্কর্য তৈরি করা সুদর্শন পট্টনায়েকের নেশা। আর এসব শিল্প তৈরি করে শুধু ভারত নয়, বিশ্বেও ছড়িয়েছে তাঁর নাম। তিনি যোগ দিয়েছেন পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে আয়োজিত বিভিন্ন বালুর ভাস্কর্য প্রদর্শন অনুষ্ঠানে। পেয়েছেন পুরস্কারও।

এবার সুদর্শন পট্টনায়েক পুরীর সমুদ্রসৈকতে তৈরি করেছেন বড়দিনের স্মরণে সান্তা ক্লজ। সঙ্গে যিশুর জন্মবৃত্তান্ত। ২৬ ফুট উঁচু আর ৬০ ফুট চওড়া এই বালুর সান্তা ক্লজ তৈরিতে ব্যবহার করেছেন বিভিন্ন রং। এবারের সান্তা ক্লজে ব্যবহার করা হয়েছে লাল, কালো আর সাদা রং।

পট্টনায়েক নিউ পুরী থেকে ট্রাকে করে এনেছেন ৬০০ টন বালু। আর এই সান্তা ক্লজ তৈরিতে সঙ্গী ছিল শিল্পী সুদর্শন পট্টনায়েকের ৫০ জন শিক্ষার্থী।

সুদর্শন বলেছেন, দেশের জাতীয় ও ধর্মীয় বিভিন্ন উৎসবে তিনি বালু দিয়ে সমুদ্রসৈকতে ভাস্কর্য তৈরি করেন। এবার তিনি বিশ্বে শান্তির ডাক দিয়ে তৈরি করেছেন যিশু আর সান্তা ক্লজকে।

সুদর্শন আরও বলেছেন, ‘সব ধর্মের প্রতি আমার শ্রদ্ধা। আমি বালুর ভাস্কর্য তৈরি করে তৃপ্ত হই।’ এবারের এই সান্তা ক্লজের বালু ভাস্কর্য পৃথিবীর বৃহত্তম বলেও দাবি করেছেন তিনি। আগামী ১ জানুয়ারি পর্যন্ত পুরীর সমুদ্রসৈকতে থাকবে এই সান্তা ক্লজ।

সুদর্শন পট্টনায়েক ২০১৪ সালে ভারতের রাষ্ট্রীয় সম্মান পদ্মশ্রী পেয়েছেন। পুরীতে গড়েছেন তাঁর ‘স্যান্ড আর্ট ইনস্টিটিউট’। এখানে বালুশিল্পের ওপর পড়াশোনা করানো হয়। সুদর্শন পট্টনায়েকের বয়স এখন ৪০ বছর। জন্ম পুরীতেই।

নি এম/

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

সম্পাদক : সুকৃতি কুমার মন্ডল 

 খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

+8801711-98 15 52

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2019 Eibela.Com
Developed by: coder71