সোমবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৮
সোমবার, ২৬শে অগ্রহায়ণ ১৪২৫
 
 
পুলিশের ওপর মানুষের আস্থা ফিরেছে: প্রধানমন্ত্রী
প্রকাশ: ০২:৩৬ pm ১৬-০৯-২০১৮ হালনাগাদ: ০২:৩৬ pm ১৬-০৯-২০১৮
 
এইবেলা ডেস্ক
 
 
 
 


বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীর ভূয়সী প্রশংসা করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, একটি দেশকে উন্নত করতে হলে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হল আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে রাখা, আর এ কাজে পুলিশ বাহিনী সফল হয়েছে।

রবিবার ঢাকার গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে রংপুর ও গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কার্যক্রমের উদ্বোধন করে তিনি এ কথা বলেন।

পুলিশ বাহিনীর প্রশংসা করে শেখ হাসিনা বলেন, আসলে কাজের কথা বিবেচনা করে, আমি দেখেছি, পুলিশ বাহিনীকে অনেক কষ্ট করতে হয়। ১৯৯৬ সালে ক্ষমতায় এসে আমি দেখেছি মাত্র ২০ শতাংশ পুলিশ রেশন পেতো, আমি সেখান থেকে তা বাড়িয়ে দিয়েছি, ঝুঁকি ভাতা চালু করা থেকে শুরু করে অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করতে পদক্ষেপ নিয়েছি, তাদের আবাসন ব্যবস্থা করেছি। আজকে রংপুর ও গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের দুটি ইউনিউ চালু করছি যাতে এই দুই অঞ্চলের মানুষ আইনি সেবা পেতে পারে।

জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাস দমনে পুলিশ বাহিনীর ভূমিকার প্রশংসা করে প্রধানমন্ত্রী বলেন,“এই দেশে আমাদের কিছ জঙ্গিবাদ সন্ত্রাস বাংলা ভাই সৃষ্টি হয়েছিল। কিন্তু পুলিশ বাহিনী এখানে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে। বিএনপি-জামাত জোটের অগ্নি সন্ত্রাসেরও শিকার হযেছে আমাদের পুলিশ বাহিনী। প্রায় ২৭ জন পুলিশ সদস্য মৃত্যুবরণ করেছে এদের হাতে। তাদের আত্মার মাগফেরাত আমরা কামনা করি। পুলিশ, র‌্যাব ও আইনশৃ্খলা বাহিনীর অন্যান্য সংস্থার বলিষ্ঠ ভূমিকা সত্যিই প্রশংসার দাবি রাখে।

উদ্বোধনের ফলে আজ থেকে রংপুর ও গাজীপুর মেট্রোপলিটনের  কার্যক্রম শুরু হলো।
২০১০ সালে দেশের সপ্তম বিভাগ প্রতিষ্ঠার পর রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ গঠনের সিদ্ধান্ত নেয় সরকার। চালু হওয়া এ মেট্রোপলিটন পুলিশের আওতায় রয়েছে ৬টি থানা। এগুলো হলো- কোতোয়ালি, তাজহাট, মাহিগঞ্জ, হারাগাছ, পরশুরাম ও হাজিরহাট থানা। ২৪০ বর্গকিলোমিটার আয়তনের নতুন এ মেট্রোতে ৬টি থানা ছাড়াও দুটি পুলিশ ফাঁড়ি (ধাপ ও নবাবগঞ্জ) রয়েছে।  ১ হাজার ১৮৫ জন জনবল ও ১৩০টি যানবাহন নিয়ে নগরবাসীকে সেবা দিতে প্রস্তুত রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ। ইতোমধ্যেই পুলিশ কমিশনারসহ ৯০ ভাগ জনবল নিজ নিজ পদে যোগ দিয়েছেন। 

২০১৩ সালের ১৬ জানুয়ারি গাজীপুর পৌরসভাকে ১১তম সিটি করপোরেশন হিসেবে গেজেট প্রকাশ করে সরকার। ২০১৫ সালের ডিসেম্বরে মন্ত্রিসভার বৈঠকে এই সিটি করপোরেশনে মহানগর পুলিশ গঠনে আইনের নীতিগত অনুমোদন দেয়া হয়। এ ছাড়া গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের আওতায় থাকবে ৮টি থানা। জিএমপির নতুন থানা ও এর অধিভুক্ত এলাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। এর আওতাধীন আটটি নতুন থানা হলো- সদর (বর্তমান জয়দেবপুর থানা), বাসন, কোনাবাড়ী, কাশিমপুর, গাছা, পূবাইল, টঙ্গী পূর্ব ও টঙ্গী পশ্চিম থানা।

নি এম/

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71