সোমবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮
সোমবার, ৯ই আশ্বিন ১৪২৫
 
 
পুলিশ কর্মকর্তাদের অপসারণের দাবিতে বিক্ষোভ
প্রকাশ: ০৬:১০ pm ২১-১২-২০১৭ হালনাগাদ: ০৬:১৭ pm ২১-১২-২০১৭
 
বেনাপোল প্রতিনিধি:
 
 
 
 


পুলিশ কর্মকর্তাদের অপসারণের দাবিতে ২৪ ঘন্টা সময় বেধে দিয়ে বৃহস্পতিবার সকালে বেনাপোলে বিক্ষোভ মিছিল, প্রতিবাদ সমাবেশ ও মানববন্ধন করেছে কাস্টমস কর্মকর্তারা। বন্ধ রয়েছে দু’দেশের মধ্যে আমদানি রফতানি বানিজ্য। প্রতিবাদে সারা দেশে কাস্টমস কর্মকর্তারা কালো ব্যাজ ধারন করেছে।

বেনাপোল আন্তর্জাতিক চেকপোষ্ট কাষ্টমস তল্লাশী কেন্দ্রে বুধবার রাতে ভারত থেকে আসা ২ জন পাসপোর্ট যাত্রীর ব্যাগেজ তল্লাশীর ঘটনাকে কেন্দ্র করে পুলিশ ও কাস্টমস কমকর্তাদের মধ্যে মারামারি ও ভাংচুর’র  ঘটনায় ৫ কাস্টমস কর্মকর্তা আহত হয়। আহতদের  হাসপাতালে ভর্তি করা হযেছে।

বেনাপোল কাস্টমস অফিসার এসোশিয়েশনের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা নজরুল বাংগালী কর্মসূচী শেষে জানান, সরকারী অফিস ভাংচুর ও কাস্টমস অফিসারদের ওপর হামলার ঘটনায় জড়িত ওসি ওমর শরীফসহ ৫ জন পুলিশকে অপসারন করা না হলে রবিবার থেকে  কালোব্যাজ ধারন, কর্মবিরতি ও আমরন অনশন কর্মসূছী ঘোষনা করা হয়।

বিজয়ের মাসে একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা নজরুল ইসলাম বাংগালীসহ কাস্টমস এর ৫ কর্মকর্তার ওপর পুলিশ’র হামলার  নিন্দা জানিয়ে  বিবৃতি দিয়েছেন, বিসিএস কাস্টমস এন্ড ভ্যাট এসোশিয়েশন, বাংলাদেশে কাস্টমস এক্সসাইজ এন্ড ভ্যাট অফিসার্স এসাশিয়েশন, বাংলাদেশ কাস্টমস এক্সসাইজ এন্ড ভ্যাট তৃতীয় শ্রেনী নির্বাহী কর্মচারী সমিতি।

বেনাপোল কাস্টমস অফিসার্স এসোশিয়েশনের সাধারন সম্পাদক মোস্তফা আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, কাস্টমস এর কাছে গোপন সংবাদ ছিল ভারত থেকে দু জন পাসপোর্ট যাত্রী ১ লক্ষ ডলার ও রুপীর একটি চালান নিয়ে বাংলাদেশে আসছে। এমন সংবাদের ভিওিতে ২জন পাসপোর্ট যাত্রীকে আটক করা হয়। পরে ওসি ওমর শরীফের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঐ যাত্রীদের ছিনিয়ে নেয় কাস্টমস কর্মকর্তাদের কাছ থেকে। তাদের কাছ থেকে ৮ লাখ টাকার অবৈধ মালামাল আটক করলেও ডলার ও রুপি আটক করা সম্ভব হয়নি বলে তিনি জানান।

বেনাপোল কাস্টমস কমিশনার বেলাল হোসেন চৌধুরী জানান, বিজয়ের মাসে একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা সিনিয়র অফিসারসহ আরো ৫ জন অফিসারকে পুলিশ কনস্টেবল শারিরীক ভাবে নির্যাতন করায় গোটা মুক্তিযোদ্ধাদের অসম্মানিত করা হযেছে। ঘটনাটি সিসি ক্যামেরায় ধারনকৃত ফুটেজ দেখে তদন্ত করা হলে মুল অভিযুক্তকে সনাক্ত করা সম্ভব হবে। কাস্টমস অফিসারদের মারধর করায় গোটা কাস্টমস এর মত সরকারী একটি অফিসে এ ধরনের হামলা ভাংচুর সত্যিই দু:খ জনক। কাস্টমস এর কাজে অন্য একটি সংস্থার এধরনের হস্থক্ষেপ সরকারের রাজস্ব আদায়ে বাধা গ্রস্থ হবে। এ ধরনের তৎপরতা বন্ধ হওয়া উচিত। তবে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত থেমে-থেমে আমদানি রফতানি শুরু হচ্ছে।

এম/এসএম

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71