বুধবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৮
বুধবার, ২৮শে অগ্রহায়ণ ১৪২৫
 
 
ফরিদপুর বসতবাড়ি ও মন্দির গুঁড়িয়ে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা
প্রকাশ: ১০:০৯ am ৩১-১০-২০১৮ হালনাগাদ: ১০:০৯ am ৩১-১০-২০১৮
 
ফরিদপুর প্রতিনিধি
 
 
 
 


ফরিদপুরের আলিয়াবাদ ইউনিয়নের চৌহাট্টা গ্রামে হিন্দুপট্টিতে হামলা ও ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে। 

সোমবার (২৯ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে একদল বেধর্মী দুর্বৃত্ত দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা চালিয়ে লক্ষ্মী রানী দাসের বসত বাড়ির তিনটি ঘর ও একটি মন্দির ভেঙে মাটির সঙ্গে মিশিয়ে দিয়েছে।

এ সময় ঘরের মালামালও লুট করা হয়। হামলাকারীরা পারিবারিক মন্দিরে হামলা চালিয়ে মন্দির ও প্রতিমা ভাঙচুর করে। এ ঘটনায় এলাকাবাসীর মধ্যে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, ১৯৭০ সালের ১৫ মার্চ জমির মালিক সতীশ চন্দ্র রায় তার অংশের ৫৫ শতাংশ জমি নিমাই চন্দ্র দাসের স্ত্রী লক্ষী রানী দাসের কাছে বিক্রি করে ভারতে চলে যান। পরবর্তীতে লক্ষী রানী দাস ও তার পরিবারের সদস্যরা সেই জমিতে বসবাস করে আসছিলেন। লক্ষী রানী মারা যাওয়ার পর তার ছেলে খোকন দাস ও তার ভাই পরিবার-পরিজন নিয়ে সেখানে বসবাস করছেন। কয়েক বছর আগে মজিবর রহমান নামের স্থানীয় এক ব্যক্তি জায়গাটি নিয়ে আদালতে একটি মামলা করেন। বর্তমানে আদালতে মামলা চলছে। মামলা চলাকালীন জায়গা থেকে চলে যেতে একাধিকবার হুমকি দেয়া হয়। আদালতে মামলা চলমান থাকলেও মজিবরের নির্দেশে মমিন খাঁ, নাজমুল ইসলাম ও বিল্লাল শেখসহ কয়েক অজ্ঞাত ব্যক্তি এসে বাড়িঘর ভাংচুর করে। এ সময় তারা মন্দিরসহ চারটি টিনের ঘর ভেঙে মাটির সঙ্গে মিশিয়ে দেয়। একপর্যায়ে তারা ট্রাকে করে বেশকিছু মালামাল নিয়ে যায়। 

খোকন দাসের স্ত্রী বর্ষা রানী দাস বলেন, আমাদের বাড়ি ভাঙচুর করে বেশকিছু মালামাল ট্রাকে করে নিয়ে যায় হামলাকারীরা। হামলাকারীদের বাধা দিলে তারা আমাদের লাঞ্ছিত করে। তিনি বলেন, হামলাকারীরা ঘর বাড়ি ভাঙচুর করে মাটির সঙ্গে মিশিয়ে দিয়ে সেখানে এমন অবস্থা করেছে যে এখন দেখলে কারো মনে হবে এখানে কোনো ঘর-বাড়ি ছিল।

কোতোয়ালি থানার ওসি এএফএম নাসিম জানান, এ বিষয়ে একটি জিডি হয়েছে। ঘটনা তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

নি এম/

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71