রবিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯
রবিবার, ১২ই ফাল্গুন ১৪২৫
সর্বশেষ
 
 
ফাঁসির দণ্ড কমিয়ে শুক্কুর আলীকে আমৃত্যু কারাদণ্ড
প্রকাশ: ০৩:২৭ pm ০৩-০৮-২০১৫ হালনাগাদ: ০৩:২৭ pm ০৩-০৮-২০১৫
 
 
 


সাত বছরের শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যার দায়ে ১৪ বছর আগে মৃত্যুদণ্ড পাওয়া মানিকগঞ্জের শুক্কুর আলীর ফাঁসির দণ্ড কমিয়ে তাকে আমৃত্যু কারাদণ্ড দিয়েছেন আপিল বিভাগ।

সোমবার সকালে শুক্কুর আলীর ফাঁসির আদেশের বিপরীতে রিভিউ শুনানি শেষে এ রায় দেন প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বে চার সদস্যের আপিল বেঞ্চ।

এর আগে রবিবার সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগে এ শুনানি শুরু পর ৩ আগস্ট পর্যন্ত তা মুলতবি করা হয়। ওইদিন বাংলাদেশ লিগ্যাল এইড অ্যান্ড ট্রাস্ট সার্ভিসের (ব্লাস্ট) পক্ষে শুনানি করেন এম কে রহমান। তিনি দণ্ড থেকে শুক্কুর আলীকে রেহাই দিতে যুক্তি দেখান যে, বিচারিক আদালতের রায়ের সময় তার বয়স অল্প থাকায় তাকে সর্বোচ্চ দণ্ড দেওয়া ঠিক হয়নি। তাছাড়া আইনের যে দুটি ধারায় বিচার করে তাকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়েছিল, হাইকোর্ট ও আপিল বিভাগ যেহেতু ধারা দুটি অবৈধ ঘোষণা করেছেন, সেহেতু তাকে দণ্ড থেকে রেহাই দেওয়া যেতে পারে।

প্রসঙ্গত, ধর্ষণ ঘটনার সময় আসামি শুক্কুর আলীর বয়স ছিল ১৪ বছর। বিচারিক আদালতের রায় প্রদানের সময় তার বয়স ছিল ১৯ বছরে।

১৯৯৬ সালের ১১ জুন শুক্কুর আলী সাত বছর বয়সী এক শিশুকে ধর্ষণ শেষে হত্যা করে। পরে মানিকগঞ্জের নারী ও শিশু নির্যাতন বিশেষ ট্রাইব্যুনাল ১৯৯৫ সালের নারী ও শিশু নির্যাতন আইনের ৬(২) ধারায় এ মামলায় আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে বিচার শুরু করেন।

২০০১ সালের ১২ জুলাই শুক্কুর আলীকে মৃত্যুদণ্ড প্রদান করেন বিচারিক আদালত। এরপর রায়ের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে করা আপিল আবেদন খারিজ করে দিয়ে

২০০৪ সালের ২৫ ফেব্রুয়ারি ফাঁসির রায় বহাল রাখেন আদালত। পরে ২০০৫ সালের ২৩ ফেব্রুয়ারি আপিল বিভাগও মৃত্যুদণ্ড বহাল রাখেন। ওই বছরই শুক্কুর আলীর মা রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণভিক্ষা চেয়ে একটি আবেদন জমা দেন।

এইবেলা ডটকম 
 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

সম্পাদক : সুকৃতি কুমার মন্ডল 

 খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

+8801711-98 15 52

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2019 Eibela.Com
Developed by: coder71