শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮
শুক্রবার, ৬ই আশ্বিন ১৪২৫
 
 
ফিরে দেখা জালিয়ানওয়ালাবাগ হত্যাকাণ্ড
প্রকাশ: ০৫:৫৭ pm ১৩-০৪-২০১৮ হালনাগাদ: ০৫:৫৭ pm ১৩-০৪-২০১৮
 
এইবেলা ডেস্ক
 
 
 
 


আজ থেকে ১০০ বছর আগে, ১৯১৯ সালের আজকের দিনেই ঘটেছিল জালিয়ানওয়ালাবাগের হত্যাকাণ্ড৷ ভারতের স্বাধীনতা সংগ্রামের এটি ছিল অন্যতম ভয়ঙ্কর একটি অধ্যায়৷ 

স্বাধীনতা সংগ্রামী সত্য পাল ও সফুদ্দিন কিচলুয়ের কারাবাস ও রাওলাট আইন প্রণয়ন নিয়ে ১৯১৯ সালের ১৩ মে জালিয়ানওয়ালাবাগে একত্রিত হয়েছিল বহু মানুষ৷ ব্রিটিশ সরকারের জারি করা ১৪৪ ধারা অবজ্ঞা করে দেশের স্বাধীনতার জন্য জমায়েত হয়েছিলেন তাঁরা৷ জমায়েতে পুরুষের পাশাপাশি বহু মহিলা ও শিশুও অংশ নিয়েছিল৷

এলাকার চারপাশ ছিল উঁচু দেওয়ালে ঢাকা৷ যে কয়টি গেট ছিল, সেগুলিও ছিল খুব ছোটো৷ সেদিন ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ডায়ারের নির্দেশে সেই গেটগুলিও বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল চুপিসারে৷ তারপর তারই আদেশে চলছিল গুলি৷ বৃষ্টিপাতের মতো ঝাঁকে ঝাঁকে হয়েছিল গুলিবর্ষণ৷ আর তার সামনে ঝাঁঝরা হয়ে গিয়েছিল হাজার হাজার নারী, পুরুষ ও শিশু৷ প্রাণ বাঁচাতে সেদিন অনেকেই দেওয়াল টপকাতে চেয়েছিল৷ কিন্তু পারেনি৷ অনেকে আবার ঝাঁপ দিয়েছিল পার্কেরই একটি কুয়োতে৷ কিন্তু ওই ৯০ জন ব্রিটিশ সৈনিকের উদ্যোগ তাতে কমেনি৷ তাদের গুলি একটি প্রাণকেও অধরা রাখেনি৷

আজ আবার এক ১৩ এপ্রিল৷ জালিয়ানওয়ালাবাগের হত্যাকান্ডের শহিদদের শ্রদ্ধা জানিয়ে রইল কিছু অজানা তথ্য:

১) সরকারিভাবে দেখানো হয়েছিল জালিয়ানওয়ালাবাগে ৩৭৯ জন মারা গিয়েছিলেন৷ আহত হয়েছিলেন ১৯২ জন৷ কিন্তু সেদিন আসলে ১ হাজারেরও বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছিল৷ আহত হয়েছিলেন প্রায় ১ হাজার ২০০ মানুষ৷

২) সবাই ব্রিটিশ সৈনিকের গুলির মুখে মারা যাননি৷ অনেকেই পদপিষ্ট হয়েছিলেন৷ এছাড়া কুয়ো থেকে উদ্ধার করা হয়েছিল প্রায় ১২০টি মৃতদেহ৷

৩) জেনারেল ডায়ার তার সেনাকে নির্দেশ দিয়েছিলেন জনগণের দিকে ওপেন ফায়ার করার৷ কিন্তু আশ্চর্যজনকভাবে দলনেতার নির্দেশ অমান্য করেছিলেন কয়েকজন৷ তাঁরা গুলি চালিয়েছিলেন৷ তবে শূন্যে৷

৪) প্রায় ১ হাজার ৬৫০ রাউন্ড গুলি চালানো হয়েছিল৷ আর তার জন্য সময় লেগেছিল মাত্র ১০ মিনিট৷ এর জন্য কোনও আগাম বার্তাও দেওয়া হয়নি৷

৫) এই ঘটনার কয়েক মাস পর ‘দ্যা বুচার অফ অমৃতসর’ জেনারেল ডায়ারকে কম্যান্ড থেকে সরিয়ে দেওয়া হয় ও ব্রিটেনে পাঠিয়ে দেওয়া হয়৷ তবে তার সঙ্গে গিয়েছিল ২৬ হাজার পাউন্ড৷ তখনকার দিনে এর মূল্য খুব একটা কম ছিল না৷ ১৯২৭ সালে বারবার হার্ট অ্যাটাকের ফলে তার মৃত্যু হয়৷

৬) জালিয়ানওয়ালাবাগ হত্যাকাণ্ডের বিরোধিতা করে ব্রিটিশদের দেওয়া নাইট উপাধি ত্যাগ করেছিলেন রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর৷

বিডি

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71