রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮
রবিবার, ৮ই আশ্বিন ১৪২৫
 
 
ফুলবাড়ীতে এক হিন্দু নারীকে মধ্যযুগীয় কায়দায় লাঠিপেঠা
প্রকাশ: ১১:২১ pm ২৩-০৫-২০১৫ হালনাগাদ: ১১:২১ pm ২৩-০৫-২০১৫
 
 
 


কুড়িগ্রাম: জেলার ফুলবাড়ীতে কাশিপুর ইউনিয়নের ধর্মপুর গ্রামে মধ্যযুগীয় কায়দায় এক হিন্দু নারীকে পিঠিয়েছে স্থানীয় সন্ত্রাসীদের সদস্য। বুধবার ১৩ মে এ ঘটনাটি ঘটে ।

 

স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, ধর্মপুর গ্রামে ৩৩ টি হিন্দু পরিবার পৈত্রিক সুত্রে বসবাস করে আসছেন। কিন্তু ওই গ্রামে প্রায় ৪৫ বছর পূর্বে টাঙ্গাইল জেলা থেকে ছেড়ে আসা আকবর আলীর ছেলে মো. লাল চাদঁ ও আব্দুল মান্নান  (চাঁদমিয়া) নামের এক ভাটিয়া পরিবার হিন্দুদের জমি ক্রয় করে বসতবাড়ী তৈরী করার পর নানান ভাবে হিন্দুদের হয়রানি করে আসছে। সংখ্যালঘু পরিবার হওয়ায় ওই এলাকার হিন্দুরা ভয়ে ভীত হয়ে কেউয়েই মুখ খুলতে সাহস পায় না।

 

গত ১৩ মে রনজিৎ চন্দ্র সেনের স্ত্রী শ্রীমতি বিরতি রানী ও তার ৭ বছরের ছেলে সজলকে মান্নানের পাটক্ষেতের পাট গরুর বাছুর দিয়ে খাওয়ার অভিযোগে প্রকাশ্য দিবালোকে লাঠিদিয়ে মান্নান, লালচাঁদ ও লাল চচাঁদের ছেলে হাফিজুল হক বেধরক মারপিঠ করে।

 

এ সময় ঘটনাটি ছোট্ট একটি ছেলে তার নিজস্ব মোবাইল ফোনে ভিডিও ধারন করে বাইরে প্রচার করলে বিষয়টি জনসমুখে আসে। মা ও ছেলেকে মুমুর্ষ অবস্থায় এলাকার লোকজন উদ্ধার করে প্রথমে ফুলবাড়ী হাসপাতালে পরে অবস্থার অবনতি হলে রংপুরে মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। বর্তমানে বিরতি রানী জীবন মৃত্যুর সদ্ধিক্ষনে অবস্থান করছেন রংপুরে।

লালচাঁদ জানান, আমরা ঘটনা ঘটিয়েছি। আইনে যা হবে তাই মেনে নেব।

 

শ্রীমতির স্বামী রনজিৎ জানান, আমরা হিন্দু হওয়ায় আজকের এ অবস্থা। তিনি আরো জানান, থানায় মামলা করেছি। কিন্তু একদিন পার না হতেই তারা জামিনে এসে আবারো প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দিচ্ছে।

 

এব্যাপারে ফুলবাড়ী থানার মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই শফিউল ইসলাম জানান, মামলার আসামীরা আদালত থেকে জামিন নিয়েছেন। তদন্ত সাপেক্ষে চার্জসিট প্রদান করা হবে।

এইবেলা.কম/এসবিএস

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71