বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮
বুধবার, ৪ঠা আশ্বিন ১৪২৫
 
 
বছরে ৫০০ কোটি টাকার খাদ্যশস্য নষ্ট করে ইঁদুর
প্রকাশ: ০২:৩৪ pm ২৪-১০-২০১৭ হালনাগাদ: ০২:৩৪ pm ২৪-১০-২০১৭
 
নীলফামারী প্রতিনিধি :
 
 
 
 


আকারে ছোট হলেও বছরে প্রায় ৩ লাখ টন সব ধরনের খাদ্যশস্য নষ্ট করে ইঁদুর। যার বাজার মূল্য ৫০০ কোটি টাকারও বেশি। উৎপাদিত গমের ৩ থেকে ১২ শতাংশ, ধানের ৫ থেকে ৭ শতাংশ নষ্ট করে। এরা বছরে শুধুমাত্র ধান ও গমের প্রায় ৫০০ মেট্রিক টন পর্যন্ত ক্ষতি করে থাকে।

মুরগির খামারে গর্ত করাসহ ডিম ও ছোট মুরগি খেয়ে প্রতি বছর দেশের প্রতিটি খামারের প্রায় সাড়ে ১৮ হাজার টাকা ক্ষতি করে থাকে ইঁদুরেরা। তবে ইঁদুর যতোটা না খায়, তার চেয়ে ৪/৫ গুণ বেশি নষ্ট করে। বই-খাতা, কাপড়, আসবাবপত্র, বিছানাপত্র কেটে ফেলা ছাড়াও প্রায় ৩০ ধরনের রোগও ছড়ায়।

কৃষি বিভাগ ১৭ অক্টোবর থেকে জাতীয় ইঁদুর নিধন অভিযান শুরু করেছে, যা চলবে পুরো শীত মৌসুম জুড়ে।

কৃষি বিভাগ জানায়, মাঠের ফসল উৎপাদন ও গুদামজাত শস্য সংরক্ষণে ইঁদুর প্রধান সমস্যা। মাঠের দানা জাতীয় খাদ্যশস্য, ধান, গম, ভুট্টা, বাদাম, নারকেল, পেয়ারা, সফেদা, লিচু, আম, লাউ,, শাক-সবজি এবং মাটির নিচে হওয়া আলু, মুলা, গাঁজর ও ওলকপি জাতীয় সবজি নষ্ট করে। ধান ও গমের শীষ আসার সময় ৪৫ ডিগ্রি কোণ করে কেটে গর্তের ভেতর নিয়ে বাসা তৈরি করে এবং খায়। বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ ও সেচনালায়ও গর্ত করায় সেগুলো মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হয়। অনেক সময় বৈদ্যুতিক সরঞ্জামাদি কেটে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত ঘটায়।

খাদ্যদ্রব্যে মলমূত্র, পশম এবং রোগ জীবানু সংক্রমিত করেও ইঁদুর ক্ষতি করে। গর্ত করে ঘরের কাঠামো নষ্ট করাসহ খাদ্যদ্রব্য ছড়িয়ে-ছিটিয়ে নষ্ট করে মানুষ এবং গৃহপালিত পশু-পাখির জন্য ক্ষতিকর বিভিন্ন রোগের জীবানু বহন ও বিস্তার করে।

এসব কারণে ইঁদুর দমন অত্যন্ত জরুরি। ইঁদুর নিধন কার্যক্রমকে জোরদারের মাধ্যমে ফসলের বড় অংশ রক্ষা করা সম্ভব।

আরডি/

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71