সোমবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮
সোমবার, ৯ই আশ্বিন ১৪২৫
 
 
বিধবা হয়েও কপালে টিপ পড়ায় পেনশন পাননি বৃদ্ধা
প্রকাশ: ০৪:৩৫ pm ১৭-০৪-২০১৮ হালনাগাদ: ০৪:৩৫ pm ১৭-০৪-২০১৮
 
এইবেলা ডেস্ক
 
 
 
 


ভারতের চেন্নাইয়ে বিধবা হয়েও কপালে টিপ পরায় ৭৭ বছরের এক বৃদ্ধাকে পেনশন দেননি সরকারি কর্মকর্তারা। ওই বৃদ্ধাকে শুধু পেনশন থেকেই বঞ্চিত করা হয়নি, তার সঙ্গে সরকারি কর্মকর্তারা চরম দুর্ব্যবহারও করেছেন।

জানা গেছে, ওই নারী নিজের ছেলে ও পুত্রবধূর সঙ্গে মৃত স্বামীর পেনশন তুলতে যান। কিন্তু সরকারি কর্মকর্তারা তাকে অপমান করে পেনশন দিতে অস্বীকার করেন। এমনকি এ কথাও বলেন, বিধবা হয়ে তিনি কী করে মাথায় টিপ পরলেন?

ওই নারীর স্বামী পোর্ট ট্রাস্টের ইলেকট্রিক্যাল ও মেকানিক্যাল দফতরে কাজ করতেন। ৮২ বছর বয়সে তিনি মারা যান। সরকারি আইন অনুযায়ী স্বামীর পেনশনের ৭০ শতাংশ টাকা পাবেন বিধবা। স্বামীর মৃত্যুর পর পোর্ট ট্রাস্টের ইলেকট্রিক্যাল ও মেকানিক্যাল দফতর বিধবাকে দ্রুত পেনশনসংক্রান্ত সব কাজ সম্পন্ন করতে চাপ দেয়। তখন বৃদ্ধা তার ছেলে ও পুত্রবধূকে নিয়ে দফতরে যান। কিন্তু সেখানে যাওয়ার পর কর্মকর্তারা তার সঙ্গে দুর্ব্যবহার করেন এবং পেনশন দিতে অস্বীকার করেন।

এ বিষয়ে বৃদ্ধার পুত্রবধূ সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমরা যখন সংশ্লিষ্ট দফতরে যাই, তখন পেনশন বিভাগের কর্মকর্তারা ঘুমোচ্ছিলেন। এর পর আমরা যখন ওই কর্মকর্তাকে পেনশনের ফর্ম এবং অন্য দরকারি তথ্য দিই, তখন তিনি আমার শাশুড়ির চার মাস আগে তোলা একটি ফটো প্রথমে মনোযোগ দিয়ে দেখেন। ফটো দেখে তিনি বলেন, বিধবা মহিলা টিপ কী করে পরতে পারেন? এর পর ওই কর্মকর্তা পেনশন দিতে অস্বীকার করেন।’

ওই কর্মকর্তা বৃদ্ধাকে বলেন, বিধবার কপালে টিপ ও চুলে ফুল এসব মানায় না। টিপ না পরে নতুন করে ছবি তুলে জমা দিন।

পেনশন বিভাগের কর্মকর্তার কাছে এভাবে অপদস্থ হওয়ার পর ওই নারী বাড়ি ফিরে যান। পরের দিন নতুন ছবি তুলে তিনি ওই কর্মকর্তাকে দেন।


বিডি

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71